কাতারে যে নারী আছেন আধুনিকতা ও উন্নয়নের নেপথ্যে

কাতারে যে নারী আছেন আধুনিকতা ও উন্নয়নের নেপথ্যে

পুনরায় সব ভিসা সার্ভিস চালু করেছে নেপাল
প্রবাসীদের জন্য বড় সুখবর: বিনামূল্যে ভিসার মেয়াদ বাড়ালো সৌদি
প্রবাসীদের মালয়েশিয়া প্রবেশে কোয়ারেন্টাইন ফি ৪ হাজার ৭ শত রিংগিত

মধ্যপ্রাচ্যের দেশগুলর মধ্যে অন্যতম জনপ্রিয় এবং উন্নত দেশ হল কাতার। আধুনিকতা এবং উন্নয়নে দেশটি পৌঁছেছে এক অনন্য স্তরে।

সেই ১৯৭৭ সালে কাতারের সাবেক আমির শেখ হাম্মাদ বিন খলিফা আল থানির তৃতীয় স্ত্রী হিসেবে কাতারের রাজপরিবারের অন্তর্ভুক্ত হন শেয়খা মোজা বিনতে নাসের।

৬১ বছর বয়সী শেইখা মোজার সরব পদচারণা কাতারসহ সারা বিশ্বজুড়ে। তিনি কাতারের বর্তমান আমির শেখ তামিম বিন হামাদ আল থানির মা। আজকের এই আধুনিক কাতারের পেছনে নেপথ্য কারিগর এই মহিয়সী নারী।

বিয়ের পর ১৯৮৬ সালে কাতার বিশ্ববিদ্যালয় থেকে সমাজবিজ্ঞানে স্নাতক ডিগ্রী লাভ করেছেন তিনি। হামাদ বিন খলিফা বিশ্ববিদ্যালয় থেকে মাস্টার্স করেছেন পাবলিক পলিসি ইন ইসলাম বিষয়ে। এছাড়া দেশ-বিদেশের নানা বিশ্ববিদ্যালয় থেকে পেয়েছেন সম্মানসূচক ডক্টরেট ডিগ্রী।

১৯৯৮ সাল থেকে রাষ্ট্র পরিচালনার গুরুত্বপূর্ণ পদে দায়িত্ব পালন করছেন শেয়খা মোজা। প্রধান পরিচালক হিসেবে ছিলেন পর্যায়ক্রমে পরিবার, শিক্ষা ও স্বাস্থ্য বিষয়ক সুপ্রীম কাউন্সিলে।

এছাড়া কাজ করেছেন জাতিসংঘসহ বিভিন্ন আন্তর্জাতিক সংস্থায়। শেইখা মোজা কাজ করেছেন জাতিসংঘের মিলেনিয়াম ডেভেলপমেন্ট গোলের এডভোকেট হিসেবে।

ছিলেন জাতিসংঘের এডুকেশন ফার্স্ট প্রোগ্রামের পরিচালনা বোর্ডের সদস্য এবং ইউএনএওসির শুভেচ্ছা দূত। বর্তমানে তিনি জাতিসংঘের টেকসই উন্নয়ন কার্যক্রমের এডভোকেট, ইউনেস্কোর বিশেষ দূত হিসেবে দায়িত্ব পালন করছেন।

কাতারে তিনি পরিচালক হিসেবে আছেন কাতার ফাউন্ডেশনে যার অধীনে নির্মাণ করা হয়েছে এডুকেশন সিটি। বিশ্বের নামী-দামি অনেক বিশ্ববিদ্যালয়ের ক্যাম্পাস নির্মিত হয়েছে এডুকেশন সিটিতে।

আরব তরুণদের কর্মসংস্থানের জন্য শেইখা মোজা প্রতিষ্ঠা করেছেন সিলাটেক ফাউন্ডেশন। তরুণদের প্রশিক্ষণ দিয়ে দক্ষ করে তোলা এর লক্ষ্য। ১৮ দেশে প্রায় ১৭ লাখ তরুণকে ইতোমধ্যে কাজ করেছে সিলাটেক।

শিক্ষাক্ষেত্রে অতূলনীয় অবদান রেখে চলেছেন শেইখা মোজা। এডুকেশন এবোভ অল নামে বিশ্বব্যাপী প্রজেক্ট নিয়ে কাজ করছেন তিনি। পাশাপাশি তিনি কাতার সোশ্যাল ওয়ার্ক নামে সামাজিক সংস্থার প্রতিষ্ঠাতা।

এছাড়া শেইখা মোজা প্রধান পরিচালক হিসেবে দায়ত্ব পালন করছেন সিদরা মেডিসিন নামে চিকিৎসা সেবা সংস্থার। দোহার উপকণ্ঠে আধুনিক শহর হিসেবে নির্মাণাধীন মুশায়রিবের মূল কর্তাও তিনি, যাতে থাকবে আধুনিকতার সাথে আরব ঐতিহ্যের ছোঁয়া।

বিশ্বজুড়ে রয়েছে শেয়খা মোজার সরব পদচারণা। বিভিন্ন দেশের রাষ্ট্রপ্রধান, রানি এলিজাবেথ অথবা পোপের মত ধর্মীয় ব্যক্তিত্ব অনেকের সাথেই ছবিতে দেখা যায় তাকে। ফ্যাশনে সবসময় কেতাদুরস্ত শেয়খা মোজা। কালো বোরকার পাশাপাশি নানা রঙের বাহারি পোশাকে দেখা যায় তাকে।

তবে আধুনিকতার সাথে থাকে ধর্মীয় রীতিও। যে কোনো পোশাকের সাথেই মাথা ঢেকে রাখেন সবসময়। আরব বিশ্বের বিখ্যাত ফ্যাশন ট্রাস্ট এরাবিয়া তাকে অনারারি প্রেসিডেন্ট হিসেবে ঘোষণা দিয়েছে।

COMMENTS

[gs-fb-comments]