মালয়েশিয়ায় অ’বৈধ প্রবাসীদের বৈধ হতে সরকার কর্তৃক নির্ধারিত খরচের তালিকা

মালয়েশিয়ায় অ’বৈধ প্রবাসীদের বৈধ হতে সরকার কর্তৃক নির্ধারিত খরচের তালিকা

ধর্ম প্রতিমন্ত্রী হিসেবে শপথ নিলেন ফরিদুল হক
বাইডেন প্রেসিডেন্ট হওয়ায় ফেনীতে মেজবান ও দোয়ার আয়োজন
পুলিশের সেবায় শতকরা ৯৫ জনের বেশি সন্তুষ্ট : ডিএমপি কমিশনার

ব্রিটেনভিত্তিক সংবাদ সংস্থা বিবিসি বাংলা জানিয়েছে, মালয়েশিয়া থেকে সাংবাদিক আহমেদুল কবির বলেছেন, বৈধ হতে সরকারি ভাবে কত টাকা খরচ হবে, মালয়েশিয়ার অভিবাসন বিভাগ একটি তালিকা প্রকাশ করেছে।

ইমিগ্রেশনের তথ্য অনুযায়ী:

অবৈধ প্রবাসীদের বৈধ হতে মালয়েশিয়া সরকার কর্তৃক নির্ধারিত খরচের তালিকা-

১. ডিপোজিট ফি – ৫০০ রিঙ্গিত

২. কমপাউন্ড (জরিমানা) – ১৫০০ রিঙ্গিত

৩. লেভি – ১৮৫০ রিঙ্গিত

৪. করোনা টেস্ট – ৩৮০ রিঙ্গিত

৫. মেডিকেল ফোমিমা – ১৮০ রিঙ্গিত

৬. পারমিট (পিএলকেএস) – ২০৫ রিঙ্গিত।

৭. ইনসুরেন্স – ১৮০ রিঙ্গিত

ইমিগ্রেশনের খরচ ৪৭৯৫ রিঙ্গিত। অর্থাৎ বাংলাদেশি টাকায় ৯৫, ৯০০ টাকা।

মালয়েশিয়ায় বৈধতা পেতে প্র;তারিত না হতে বাংলাদেশ দূতাবাসের সতর্কীকরণ

মালয়েশিয়ায় বসবাসরত অ;বৈধ অভিবাসীদের বৈধতা দেওয়ার ঘোষণা দিয়েছেন দেশটির সরকার। আর এই খবরে পূর্বের মতই সক্রিয় হয়ে উঠেছে প্র;তারক চ;ক্র, দা;লাল ও এ;জেন্ট।

তারা ইতিমধ্যে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমসহ বিভিন্ন মাধ্যমে লোভনীয় অফার ও বৈধকরণে অ;পপ্রচার লি;প্ত হয়েছে। তাই এই দা;লাল, এজেন্টদের কাছে প্র;তারিত না হতে মালয়েশিয়াস্থ বাংলাদেশ দূতাবাস থেকে শনিবার ১৪ নভেম্বর একটি বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করে সতর্ক করা হয়েছে। বাংলাদেশ দূতাবাসের সতর্কীকরণঃ বিজ্ঞপ্তি টি হুবহু তুলে ধরা হলোঃ-

মালয়েশিয়া সরকার অবৈধভাবে অবস্থানরত বাংলাদেশসহ ১৫টি দেশের নাগরিকদের (সাধারণকর্মী) নিম্নলিখিত ৪টি সেক্টরে বৈধতা প্রদানের কর্মসূচি Recalibration Program ( Program Rekalibrasi Tenaga Kerja) ঘোষণা করেছে। এই বৈধকরণ প্রক্রিয়া ১৬ নভেম্বর ২০২০ তারিখে শুরু হয়ে ৩০ জুন ২০২১ তারিখ পর্যন্ত চলবে।

যেসকল সেক্টরে বৈধ হওয়া যাবে: কনস্ট্রাকশন সেক্টর; ম্যানুফ্যাকচারিং সেক্টর; প্লান্টেশন সেক্টর এবং এগ্রিকালচার সেক্টর।

বৈধ হবার প্রক্রিয়া: এই কর্মসূচির জন্য কোন এজেন্ট বা ভেন্ডর নাই। শুধু নিয়োগকর্তা বা কোম্পানি অ;বৈধ কর্মীদের নামসহ সরাসরি ইমিগ্রেশনে আবেদন করবে ইমেইলে rekalibrasi @ imi.gov.my

সা;বধান: মালয়েশিয়া সরকার কোন এজেন্ট বা ভেন্ডর নিয়োগ করে নি, কোম্পানি ছাড়া অন্য কারো মাধ্যমে বা নিজে

নিজে ইমিগ্রেশনে গিয়ে বৈধ হওয়া যাবে না। এই কাজ নিয়োগকর্তা বা কোম্পানি নিজেই সরাসরি করবে, তাই কোন ধরনের আর্থিক লেনদেন না করার জন্য অনুরোধ করা হলো। তথ্যসূত্রঃ বিবিস বাংলা, দূতাবাসের সতর্ক বার্তা

COMMENTS

[gs-fb-comments]