প্রবাসীর স্ত্রীর বি’বস্ত্র ভিডিও ধারণ ক’রে ৬ লাখ টাকা দা’বি

প্রবাসীর স্ত্রীর বি’বস্ত্র ভিডিও ধারণ ক’রে ৬ লাখ টাকা দা’বি

শেরপুরে মৃ,ত্যুদ,ণ্ড,প্রাপ্ত পলাতক ২ আ,সামি গ্রেফতার
বাথরুমের ভেন্টিলেটর থেকে ভিডিও করে নারীকে অ;নৈতিক প্রস্তাব
সবচেয়ে সস্তা ৫জি ফোন আনল রিয়েলমি

প্রবাসীর স্ত্রীকে প্রেমের ফাঁ’দে ফেলে অ’শ্লীল ছবি ও ভিডিও ধা’রণ ক’রে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছ’ড়িয়ে দেওয়ার ভ’য় দেখিয়ে ৫ লাখ টাকা হাতিয়ে নেওয়ার অ’ভিযোগ উঠেছে মঞ্জুর রহমান নামে এক যুবকের বি’রুদ্ধে। গত ২১

সেপ্টেম্বর এ ঘ’টনায় টাঙ্গাইল সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যা’জিস্ট্রেট (মির্জাপুর) আমলী আ’দালতে মঞ্জুর রহমানকে আ’সামি ক’রে মা’মলা ক’রেন ভু’ক্তভো’গী না’রী।

এরপর অ’ভিযুক্ত ও তার সহযোগীরা ওই না’রী ও তার পরিবারকে হু’মকি দিচ্ছে বলে জানা গেছে। অ’ভিযুক্ত মঞ্জুর রহমান (২৬) বাড়ি টাঙ্গাইলের মির্জাপুর উপজে’লার ভাওড়া ইউনিয়নে। বৃহস্পতিবার পু’লিশের একটি সূত্র বিষয়টি সাংবাদিকদের জানিয়েছে।

সূত্র আরো জানায়, নি’রাপত্তাহী’নতার কারণে ওই না’রী নিয়ে স্বামীর বাড়ি থেকে বাবার বাড়িতে চলে যেতে বা’ধ্য হয়েছেন। ভু’ক্তভো’গী না’রী জানান, তার সঙ্গে অ’ভিযুক্তের পরকীয়া প্রেমের সম্পর্ক ছিল। এ সুবাদে বাড়িতে নিয়ে গিয়ে ভ’য়ভী’তি দেখিয়ে ও হু’মকি দিয়ে বি’বস্ত্র ক’রে ভিডিও এবং ছবি ধা’রণ ক’রে মঞ্জুর।

পরে সেসব ভিডিও ও ছবি ফেসবুকে ছ’ড়িয়ে দেওয়ার হু’মকি দিয়ে কয়েক দফায় তার কাছ থেকে ৫ লাখ টাকা হাতিয়ে

নেওয়া হয়। গত আগস্টের শে’ষদিকে মঞ্জুর আবারও ৬ লাখ টাকা দা’বি ক’রে। দা’বি না মানায় ওইসব ভিডিও ও ছবি ফেসবুকে ছ’ড়িয়ে দেওয়া হয়।

এমনকি তার প্রবাসী স্বামী এবং কয়েকজন আ’ত্মীয়ের কাছেও সেসব পাঠায় মঞ্জুর। বিষয়টি নিয়ে একাধিকবার গ্রাম্য সা’লিশে ওই ব’খাটেকে শা’স্তি দেওয়া হলেও লাভ হয়নি। বরং আরও কিছু ব্যক্তিকে ভিডিও ও ছবিগুলো পাঠায় সে।

ওই না’রীর অ’ভিযোগ, প্রথমে তিনি থা’নায় মা’মলা ক’রতে চেয়েছিলেন। কিন্তু স্থানীয় ভাওড়া ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান আমজাদ হোসেন এবং স্থানীয় কিছু মাতব্বর বিষয়টি স্থানীয়ভাবে মি’মাং’সা ক’রার কথা বলেন।

এতে কালক্ষে’পণ হওয়ায় গত ২১ সেপ্টেম্বর তিনি আ’দালতে মাম’লা ক’রেন। মা’মলা হওয়ার পর মঞ্জুর রহমান ও তার সহযোগীরা ওই গৃহবধূ ও তার পরিবারকে নানাভাবে হু’মকি ও ভ’য়ভী’তি দেখাচ্ছে।

এ বিষয়ে জানতে চাইলে অ’ভিযুক্ত মঞ্জুর বলেন, ওই না’রীর সঙ্গে আমার দীর্ঘদিনের প্রেমের সম্পর্কের কারণেই আ’পত্তিক’র ভিডিও এবং ছবি তুলেছি। আমার মোবাইলে থাকলেও সেগুলো আমি ভাইরাল ক’রিনি। আমাকে ফাঁ’সানোর জন্য কে বা কারা আমার মোবাইল হ্যা’ক ক’রে ভাইরাল ক’রেছে।

ইউপি চেয়ারম্যান আমজাদ হোসেন জানান, এ ধরনের ঘ’টনা ঘ’টেছে বলে তিনি জানতে পেরেছেন। ওই ভিডিও ও ছবি

তিনি দেখেছেন। গ্রাম্য সালিশের তারিখ দেওয়া হয়েছিল। কিন্তু সা’লিশ বৈঠকের আগেই ওই না’রী আদালতে মা’মলা ক’রেছেন।

এ ব্যাপারে মির্জাপুর থা’নার ভারপ্রাপ্ত কর্মক’র্তা (ওসি, ত’দন্ত) গিয়াস উদ্দিন বলেন, ওই না’রী প’র্নোগ্রাফি আ’ইনে মা’মলা ক’রেছেন। মা’মলার ত’দন্ত চলছে। ত’দন্ত শে’ষে আ’দালতে প্রতিবেদন দা’খিল ক’রা হবে।

COMMENTS

[gs-fb-comments]