বাংলাদেশিদের জন্য শিগগিরই উম্মুক্ত হচ্ছে মালয়েশিয়ায় শ্রমবাজার

বাংলাদেশিদের জন্য শিগগিরই উম্মুক্ত হচ্ছে মালয়েশিয়ায় শ্রমবাজার

বাইডেনকে অভিনন্দন জানালেন জাস্টিন ট্রুডো
আমিরাতের কাছে ২০৯ কোটি ডলারের ড্রোন বিক্রি করছে যুক্তরাষ্ট্র
কুয়েতে সরাসরি ফ্লাইট চালুর জন্য স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের সিদ্ধান্তের অপেক্ষায় বিমান সংস্থাগুলো

বাংলাদেশের শ্রমিকদের জন্য মালয়েশিয়ার শ্রমবাজার উন্মুক্তকরণ এবং প্রাসঙ্গিক নানা বিষয়ে মালয়েশিয়ার মানবসম্পদ মন্ত্রী দাতুক সেরি এম সারাভানানের সঙ্গে বাংলাদেশের প্রবাসী কল্যাণ ও বৈদেশিক কর্মসংস্থান মন্ত্রী ইমরান আহমদের বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়েছে।

আজ ১৫ অক্টোবর বৃহস্পতিবার সকাল ১১টায় জুম অনলাইনে এ বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়।মালয়েশিয়ার শ্রমবাজার পুনরায় বাংলাদেশের জন্য উন্মুক্তকরণ, সমঝোতা স্মারক স্বাক্ষর, কর্মী নিয়োগের ক্ষেত্রে অনলাইন সিস্টেম চালু করা, কর্মী প্রেরণে

রিক্রুটিং এজেন্টের সম্পৃক্ততা, পরবর্তী জয়েন্ট ওয়ার্কিং গ্রুপ সভা আয়োজন এবং করোনা পরিস্থিতিতে আটকে পড়া বাংলাদেশি কর্মীদের মালয়েশিয়ায় প্রত্যাগমন প্রভৃতি বিষয়ে বৈঠকে আলোচনা হয়।

মালয়েশিয়ায় বাংলাদেশি শ্রমিকদের জন্য শ্রমবাজার শিগগিরই উম্মুক্তকরণের বিষয়ে মালয়েশিয়ার মানব সম্পদ মন্ত্রী তাঁর সম্মতি ব্যক্ত করেন।করোনা পরিস্থিতি উন্নত হলে কর্মী নিয়োগ প্রক্রিয়া শুরু হবে বলে তিনি আশাবাদ ব্যক্ত করেন।

এদিকে মালয়েশিয়ার প্রধানমন্ত্রী তান শ্রী মুহিউদ্দিন ইয়াসিন বলেছেন, এই বছরের শেষের দিকে অর্থাৎ ডিসেম্বরের দিকে মালয়েশিয়া কোভিড-১৯ এর টিকা সরবরাহ হতে পারে।

তান শ্রী মুহিউদ্দিন ইয়াসিন জানিয়েছেন, মালয়েশিয়া-চীনের সহযোগিতায় টিকা উৎপাদন এবং বিতরণে সম্ভব হবে।
তিনি আরও বলেন, চীনের পররাষ্ট্রমন্ত্রীর সাথে ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে আমার দ্বিপাক্ষিক বৈঠক হয়েছিল।যেখানে আমরা টিকা সরবরাহে চীনকে সমর্থন এবং সহযোগিতা নিয়ে আলোচনা করেছি।

চীন বর্তমানে কোভি;ডি-১৯ ভ্যাকসিন আবিষ্কার অধ্যয়নের ক্ষেত্রে সর্বাধিক উন্নত, আমাকে জানানো হয়েছিল যে এটি

চূড়ান্ত পর্যায়ে পৌঁছেছে এবং ক্লিনিকাল ট্রায়ালগুলি শেষ হওয়ার পরে বছরের শেষের আগে এই ভ্যাকসিন ব্যবহার করা যেতে পারে বলেও জানান প্রধানমন্ত্রী তান শ্রী মুহিউদ্দিন ইয়াসিন।

এদিকে মালয়েশিয়ায় কোভিড-১৯ পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে দেশটির প্রদেশসহ রাজধানী কুয়ালালামপুরের পাশ্ববর্তি ৩ টি ইমিগ্রেশন বিভাগ সাময়িক বন্ধ ঘোষণা করা হয়েছে।১৩ অক্টোবর মঙ্গলবার দেশটির ইমিগ্রেশন বিভাগের মহাপরিচালক দাতুক ইন্দ্রা খায়রুল দাজাইমী দাউদ স্বাক্ষরিত এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এই তথ্য জানানো হয়েছে।

ঐ বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়েছে কো;ভিড-১৯ পরিস্থিতি ভাইরাস মোকাবেলায় দেশটির সাবাহ প্রদেশে চলতি মাসের ১৩ থেকে ২৬ অক্টোবর পর্যন্ত ইমিগ্রেশন বিভাগের সব ধরনের কার্যক্রম বন্ধ থাকবে।

এছাড়াও চলতি মাসের ১৪ থেকে ২৭ অক্টোবর পর্যন্ত রাজধানী কুয়ালালামপুর ও পাশ্ববর্তি সেলাংগার, পুএরাজায়ার সব ইমিগ্রেশন বিভাগ বন্ধ থাকবে।মালয়েশিয়ায় প্রতিদিন হু হু করে বাড়ছে বাড়ছে কো;ভিড-১৯ এ আক্রান্ত রুগীর সংখ্যা।

মঙ্গলবার দেশটিতে ক;রোনা ভা;ইরাস আ;ক্রান্ত হয়েছে ৬৬০ জন। তার মধ্যে দুজন বিদেশি রয়েছে।সাবাহ প্রদেশে আ;ক্রান্ত সংখ্যা বেড়ে দাঁড়িয়েছে ৪৪৩ জন। সেলাংগার ৭৬,কেডাহ ৬০,পেরাকে ১৬, পেনাংয়ে ২৩, লাবুয়ানে ১৯, জহর বারুতে ১০, কুয়ালালামপুরে ১০,নেগরি সেমবিলানে ২ ও পাহাংয়ে ১ জন করে।

COMMENTS

[gs-fb-comments]