ছোট ভাইকে দা,ফনের পর বড় ভাইয়েরও মৃ,ত্যু

ছোট ভাইকে দা,ফনের পর বড় ভাইয়েরও মৃ,ত্যু

সরকারি ওষুধ চু’রির পর ফেলে দেয়া হলো
৭৫ বছর বয়সেও থেমে নেই সুবু
সৌদি প্রবাসীদের ভিসার মেয়াদ বাড়ল ৩০ অক্টোবর পর্যন্ত

আগের দিন রাতে হৃদরোগে আ,ক্রা,ন্ত হয়ে মা,রা যাওয়া ছোট ভাইয়ের জানাজা-দাফনের কয়েক ঘণ্টা পরই মা,রা যান চট্টগ্রাম নগর আওয়ামী লীগ নেতা এমএ রশিদ।

সোমবার রাতে নগরীর আলকরণ ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আবদুর রহমান (৬৫) মা,রা যান। মঙ্গলবার দুপুরে নগরীর পুরাতন রেল স্টেশন চত্বরে তার জানাজা শেষে নগর বাইশ মহল্লা কব,রস্থা,নে তাকে দা,ফন করা হয়।

এরপর বিকাল ৫টা ১০ মিনিটে মা,রা যান আবদুর রহমানের ভাই নগর আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক রশিদ।

চট্টগ্রাম নগর আওয়ামী লীগের এই দুই নেতার মৃ,ত্যু,তে নেতাকর্মীদের মধ্যে শো,কের ছায়া নেমে এসেছে।

নগর আওয়ামী লীগের প্রচার সম্পাদক শফিকুল ইসলাম ফারুক বলেন, আমরা সবাই আবদুর রহমান ভাইয়ের জা,নাজা ও দাফনে ছিলাম। সেখান থেকে ফেরার ঘণ্টাখানেক পর শুনি রশিদ ভাই মা,রা গেছেন।

নগর আওয়ামী লীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি মাহতাব উদ্দিন চৌধুরী এবং সাধারণ সম্পাদক আ জ ম নাছির উদ্দিন এক

শোক বার্তায় বলেন, এম এ রশিদ ও আবদুর রহমানের মৃ,ত্যু,তে গণতান্ত্রিক ও প্রগতিশীল রাজনৈতিক অঙ্গনে অপূরণীয় শূন্যতা সৃষ্টি হয়েছে। উনারা ছিলেন আপাদমস্তক নির্মাহ রাজনীতিবিদ। রাজনীতিকে কখনও অর্থবিত্তের হাতিয়ার হিসেবে ব্যবহার করেননি।

এম এ রশিদের মৃ,ত্যু,তে শোক জানিয়ে শিক্ষা উপমন্ত্রী মহিবুল হাসান চৌধুরী নওফেল শোক প্রকাশ করেন। এছাড়াও নগর মহিলা আওয়ামী লীগের সভাপতি হাসিনা মহিউদ্দিন, চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশন নির্বাচনে আওয়ামী লীগের মেয়র প্রার্থী

এম রেজাউল করিম চৌধুরী, সিটি কর্পোরেশনের প্রশাসক খোরশেদ আলম সুজন তাদের মৃ,ত্যু,তে শোক প্রকাশ করেন।

COMMENTS

[gs-fb-comments]