নামাজরত মুসলিম কৃষকদের পাহারা দিচ্ছেন শিখরা

নামাজরত মুসলিম কৃষকদের পাহারা দিচ্ছেন শিখরা

ইস্তেখারার ফলাফল কি শুধু স্বপ্নেই জানা যায়?
ফরিদপুরে হাফিজুর রহমান সিদ্দিকীর ওয়াজ মাহফিলে মানুষের ঢল
৪০০ বছরের ঐতিহ্যবাহী ভাঙ্গা মসজিদ

কৃষকদের আন্দোলনে যোগ দেওয়া বেশ কয়েকজন মুসলিম ব্যক্তি নামাজে দাঁড়িয়েছেন। আর তাদের সুরক্ষার ব্যবস্থায় রয়েছেন শিখ….

যতই সাম্প্রদায়িকতার চেষ্টা হোক না কেন, হিন্দু-মুসলিম যেন একে অপরের পরিপূরক হয়ে উঠল কৃষক আন্দোলনে।

এমনিতেই কৃষি আইনের বিরু;দ্ধে কৃষকদের এই আন্দোলনে বেকায়দায় পড়েছে মোদি সরকার। কৃষকদের সমর্থনে বিরোধী দলগুলোও এগিয়ে আসছে।

একই সঙ্গে ভারতের কিছু মুসলিম সংগঠনও পাঞ্জাব ও হরিয়ানার কৃষক;দের সমর্থনে যোগ দিয়েছে। এর মধ্যেই সামাজিক মাধ্যমে একটি ভিডিও ভাইরাল হয়েছে। তা দেখেই মন ভালো হয়ে গেছে অনেকের।

ওই ভিডিওতে দেখা গেছে, কৃষকদের আন্দোলনে যোগ দেওয়া বেশ কয়েকজন মুসলিম ব্যক্তি নামাজে দাঁড়িয়েছেন। আর তাদের সুরক্ষার ব্যবস্থায় রয়েছেন শিখ সম্প্রদায়ের লোকেরা। আজকের ভারতে রাজধানী দিল্লির বুকে এই ছবিতে শীতের

মধ্যেও যেন বসন্ত এসেছে। ভারতে সাম্প্রতিক সময়ে ধর্ম নিয়ে যারা বিবাদ করছেন তাদের জন্য এই ছবি একটি আদর্শ হয়ে উঠবে।

ভিডিওতে স্পষ্ট দেখা গেছে, শিখ সম্প্রদায়ের মানুষরা নামাজ পড়া মুসলিম সম্প্রদায়ের মানুষদের আশেপাশে দাঁড়িয়ে আছেন। যেন তাদের নামাজ পড়তে কোনো ধরনের সমস্যা না হয়। রানা আয়ুব নামে এক ব্যক্তি সামাজিক মাধ্যমে ওই

ভিডিও পোস্ট করার পর পরই তা ভাইরাল হয়ে গেছে। প্রচুর মানুষ ভিডিওটি শেয়ার করেছেন। অনেকের বক্তব্য, ভিডিওটি আরও একবার ভারতের ঐক্যের ছবি তুলে ধরেছে।

সাধারণ মানুষ এই ভিডিওতে প্রচুর কমেন্টও করেছেন। কেউ বলছেন, ‘এটাই ভারতের আসল চিত্র, কোনও ধর্ম, বর্ণ আমাদের আলাদা করতে পারে না। আমাদের সকলকে প্রতিটি কঠিন সময়ে ঐক্যবদ্ধ থাকতে হবে। প্রতিটি কঠিন সময়ে আমাদের একে অপরের হাত ধরে থাকতে হবে।’

গত ২৭ নভেম্বর থেকে কৃষকরা দিল্লি-হরিয়ানা সীমান্তে অবস্থান করছেন। কৃষি আইন বাতিল করার জন্য সরকারকে চাপ

দিচ্ছেন কৃষকরা। এই আন্দোলনে পুরো দেশ উত্তাল হয়ে উঠেছে। এমনকি আন্তর্জাতিক অঙ্গনেও এই আন্দোলনের রেশ ছড়িয়ে পড়েছে। ফলে বেশ চাপে রয়েছে নরেন্দ্র মোদির সরকার।

COMMENTS

[gs-fb-comments]