না’পি’তের সঙ্গে পা’লিয়ে বিয়ে করে সংসার কর’ছিলেন গা’ইনি ডাক্তার

না’পি’তের সঙ্গে পা’লিয়ে বিয়ে করে সংসার কর’ছিলেন গা’ইনি ডাক্তার

পোস্টার সেঁ’টে কাদের মির্জার ফাঁ’সির দা’বি
শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খুলে দেয়ার দাবি রাবি শিক্ষক-শিক্ষার্থীদের
হঠাৎ যে কারণে বরগুনা থেকে কাশিমপুর কা’রাগারে নিয়ে আসা হলো মিন্নিকে

রংপুর ন’গরীর সেনপা’ড়া এলাকার গাই’নি চিকি;ৎ;সক অ’প’হৃত হবার ২১ মাস পর ঢা’কার মো’হাম্ম’দপুর থেকে তাকে উ’দ্ধা’র করেছে সি’আ’ইডি পু’লিশ। গ্রে’ফ’তার করা হয়েছে অ’পহ’রণ’কা’রীকে। মঙ্গল’বার নগরীর কে’রানী পাড়া

এলা’কায় অব’স্থিত সি’আইডি কার্যালয়ে আয়ো’জিত সংবাদ সম্মে’লনে এ খবর জানান রংপুর সিআ’ইডির পু’লিশ সুপার মি’লু মিয়া বিশ্বা’স।

সংবাদ সম্মেল’নে সি’আ’ইডির পু’লিশ সুপা’র জানান, গত ব’ছরের মা’র্চ মাসে রংপুর নগরীর ব্য’বসায়ী আব্দু’ল গ’ফুরের মে’য়ে গাই’নি বিভা’গের চি’কিৎসক ডাঃ আ’য়েশা ছিদ্দিকা মিতু (৩৪) অ’পহৃ’ত হয়ে’ছে ম’র্মে তার বাবা

রংপুরে’র কো’তয়ালী থা’নায় একটি অ’পহ’রণ মা’ম’লা দা’য়ের করেন। মা’মলা’য় তিনি অ’ভি’যোগ করেন নগ’রীর আল’ম’নগর ক’লোনি’র নাপিত রফিকুল’ ইস’লাম ওর’ফে বাপ্পি তার মে’য়ে’কে অ’পহ’রণ করে নিয়ে গেছে।

এ ঘটনায় দীর্ঘদিন পু’লিশ চেষ্টা করেও অ’পহৃত চি;কিৎ;সক ডাঃ মিতুকে উ’দ্ধার করতে পারেনি। পরে মা’মলা’টি ত’দন্তের জন্য সিআইডি পু’লিশের কাছে দেয়া হয়।

সিআইডি পু’লিশের ত’দন্তকা’রী কর্মক’র্তা এস আই ইউনুছ দীর্ঘ’দিন ধরে অনুস’ন্ধান চালি’য়ে ডা, মিতুকে সোম’বার রাতে ঢাকা’র মোহাম্ম’দপুর এলাকার চা’নমি’য়া হা’উজিং-এর একটি বাসা থেকে উ’দ্ধা’র করে। অ’পহ’রণ’কারী বা’প্পিকে গ্রে’ফ’তার করে।

সি’আইডির পু’লিশ সুপা’র জানান, গা’ইনি বি’ভাগের চি;কি;ৎসক মিতু এর আগের স্বামীকে ডি’ভো’র্স দিয়ে বাপ্পির সাথে প্রে’মের স’ম্পর্ক গড়ে তোলে। তার আগের স্বামী’র ঘরের একটি পুত্রস’ন্তান এবং বাপ্পি’র ঘরে একটি সন্তান রয়েছে। তারা অনেক দিন আ’গে’ই বিয়ে করে সংসার করে আসছিল বলে সিআ’ইডিকে জানায়। যেহেতু অ’পহ’রণ মা’মলা হয়েছে সে কারণে তাদে’র উ’দ্ধা’র করে আ’দা’লতে সোপর্দ করা হবে।

সাংবাদি’কদের এক প্রশ্নে’র উত্তরে সিআইডি পু’লিশ সুপার জানান, চি;কিৎ;সক মিতুর সাথে ৮/৯ বছর ধরে বাপ্পির সাথে প্রে’মের স”ম্পর্ক। এর আগেও একবার তারা দু’জনে পালিয়ে গিয়েছিল। অনেক বুঝিয়ে তাকে বাড়ি’তে আনা হলেও

আ’বারো তারা পা’লিয়ে যায়। অ’প’হৃত বাপ্পি পেশা’য় নাপিত হলেও সে মিতুর বা’বার ব্যব’সায় ম্যা’নেজা’রের দায়িত্ব পালন করত। দীর্ঘ ২১ মাস যাবৎ গাই’নি বি’ভাগের চি;কিৎ;সক মোহাম্ম’দপুরে চেম্বার দিয়ে সেখানে রোগী দেখত। সে যা রোজ’গার করত তাই দিয়ে বাসা ভাড়া’সহ তাদের সংসার খরচ চলত বলে মিতু জানিয়ে’ছে।

এছাড়াও ডা. মিতু জা’নিয়েছে, বাপ্পির সাথে ২১ মাস বিবা’হিত জীবনে তাদের একটি পুত্রস’ন্তান হয়েছে। তারা সুখেই আছে। বরং তার বাবা তাদের নামে মি’থ্যা মা’ম’লা করেছে বলে দাবি করেছে ডাঃ মিতু।

COMMENTS

[gs-fb-comments]