ইমোর মাধ্যমে প্রেম, সাড়ে ১১ লাখ টাকা খোয়ালেন নারী

ইমোর মাধ্যমে প্রেম, সাড়ে ১১ লাখ টাকা খোয়ালেন নারী

ইসলাম শিক্ষায় প্রথম হলেন হিন্দু শিক্ষার্থী!
পালটে যাচ্ছে উচ্চ মাধ্যমিকে পড়ার ধরণ
১৯৭১ আর ২০২১ সালের ক্যালেন্ডার হুবহু এক!

রাজশাহীর পবা থানা পুলিশের অভিযানে ইমো অ্যাকাউন্টের মেসেজিংয়ের মাধ্যমে প্রেমের সম্পর্ক গড়ে অর্থ হা’তিয়ে নেয়া এক প্র’তারক’কে গ্রে’ফতার করা হয়েছে। সাইফুল খান শামীম ওরফে জুম্মন খান (৪০) নামের এই প্র’তার’ক

এক নারীর সঙ্গে ইমো অ্যাকাউন্টের মেসেজিংয়ের মাধ্যমে প্রেমের সম্প’র্ক গড়ে বিয়ে করে ১১ লাখ ৩৯ হাজার ৫০০ টাকা হা’তিয়ে নিয়েছে।

সাইফুল খান শামীম ওরফে জুম্মন খান মাদারীপুর জেলার কালকিনি উপজেলার খাসেরহাটের বজরুসার গ্রামের আজিজুল খান ওরফে আজগর খানের ছেলে। সে বর্তমানে ঢাকা মহানগরীর মুগদা থানার মুগদাপাড়া ১নং গলিতে বসবাস করে। রোববার রাতে জুম্মনকে ঢাকার মতিঝিল এলাকা থেকে গ্রে’ফ’তার করা হয়। পবা থানার ওসি গোলাম মোস্তফা বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা গেছে, প্র’তার’ক জুম্মন নিজেকে আমেরিকা প্রবাসী বলে দাবি করেন। কিন্তু বাংলাদেশে স্থায়ীভাবে বসবাসে আগ্রহ প্রকাশ করে পবা থানার এক নারীর সঙ্গে ইমো অ্যাকাউন্টের মেসেজিংয়ের মাধ্যমে প্রেমের সম্প’র্ক গড়ে

তোলেন। এরপর জুম্মন ওই নারীকে ইসলামী শরিয়াহ মোতাবেক গত জুন মাসে বিয়ে করেন। প্রেমের সম্প’র্ক থাকাকালীন ও বিয়ে

পরবর্তী সময়ে জুম্মন ওই নারীর কাছ থেকে ব্যবসায়িক সমস্যার কথা বলে এসএ পরিবহনের মাধ্যমে বিভিন্ন সময়ে ১১ লাখ ৩৯ হাজার ৫০০ টাকা হা’তিয়ে নেয়।

ওই নারী জুম্মনের প্র’তার’ণা বুঝতে পেরে পবা থানায় লিখিত অ’ভিযো’গ করেন। এর পরিপ্রেক্ষিতে পবা থানায় একটি নিয়মিত মা’ম’লা দায়ের হয়। মাম’লাটি দায়েরের পরপরই আরএমপি পুলিশ কমিশনার আবু কালাম সিদ্দিকের নির্দেশে পবা থানার একটি টি’ম এসআই শরিফুল ইসলামের নেতৃত্বে আসা’মিকে ঢাকা মহানগরীর মতিঝিল এলাকা থেকে গ্রে’ফতার করে।

পবা থানার ওসি গোলাম মোস্তফা বলেন, প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে আসামি তার নাম-ঠিকানা এবং ঘটনার স’ঙ্গে জ’ড়িত থাকার বিষয়টি স্বীকার করেছেন। সোমবার বিকালে তাকে আ’দালতের মাধ্যমে কা’রাগা’রে পাঠানো হয়েছে।

COMMENTS

[gs-fb-comments]