জা’ল টাকা-ই’য়া’বা’সহ ভু’য়া পিএস গ্রে’ফ’তার

জা’ল টাকা-ই’য়া’বা’সহ ভু’য়া পিএস গ্রে’ফ’তার

৮ম শ্রেণির ছাত্রী মাত্র ৫ মাসে হাতে লিখল পুরো কুরআন
অবশেষে ভক্তদের দারুণ সুখবর দিলেন ক্রিকেটার নাসির
সবজির দামে আগুন

লক্ষ্মীপুরের রামগতি থেকে জা’ল টাকা ও ই’য়া’বা’সহ প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার পিএস পরিচয়’দানকারী আবদুল মতিন চৌধুরী (৪৫) নামে একজনকে গ্রে’ফ’তা’র করেছে র্যাপিড অ্যাকশন ব্যাটেলিয়ন (র‍্যা’ব)।সোমবার (১৯ এপ্রিল) সকালে কোম্পানি ক’মা’ন্ডার অতিরিক্ত পুলি”শ সুপার খন্দকার মো. শামিম হোসেন সাংবাদিক সম্মেলনে এ তথ্য নিশ্চিত করেন।

এর আগে রোববার (১৮ এপ্রিল) রাতে রামগতি উপজেলার চরগাজী ইউনিয়নের চর আফজল গ্রামের বাড়ি থেকে তাকে গ্রে’ফ’তা’র করা হয়। আবদুল মতিন একই এলাকার মৃত আবদুর রবের ছেলে।

র‍্যা’ব জানায়, আবদুল মতিন প্রধানমন্ত্রীর পিএস, বিভিন্ন কলেজ-বিশ্ববিদ্যালয়ের ভিপি ও এমপি-মন্ত্রীদের কাছের লোক পরিচয় দিয়ে প্র’তা’রণার মাধ্যমে মানুষের কাছ থেকে টাকা আদায় করতেন। তার নাম আবদুল মতিন চৌধুরী হলেও নিজেকে মতিন চৌধুরী, মিজানুর রহমান, মিজানুর রহমান মতিন ও মিজানুর রহমান মুতিন নামে পরিচয় দিতেন। তার বাবার নাম আবদুর রব হলেও তিনি প্রফেসর কামরুল মাস্টারের ছেলে হিসেবে পরিচয় দেন।

রোববার অভিযান চালিয়ে তার কাছ থেকে ৫০ পিস ইয়া’বা, এক লাখ ৩৯ হাজার টাকার (৫০০ টাকার নোট) জা’ল নোট, প্র’তা’রণার কাজে ব্যবহৃত ২টি সিল, প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের ১০টি ভু’য়া’ প্যাড, দুটি খাম উ’দ্ধা’র করা হয়। এসময় মতিন ও তার বাবার নামীয় আইডি কার্ড জব্দ করা হয়। তার কাছে এইচএসসি পাশের ভু’য়া সনদ পাওয়া গেছে।

খন্দকার মো. শামিম হোসেন বলেন, মতিনের বৈধ কোনো পেশা নেই। তিনি পেশাদার প্র’তা’র’ক। জা’ল টাকা ও মা’দক ব্যবসায়ী। গ্রেফতারের ঘটনায় তার নামে রামগতি থানায় ৩টি এজাহার দায়ের করা হয়েছে। এছাড়াও তার বিরুদ্ধে লক্ষ্মীপুর ও নোয়াখালীর বিভিন্ন থানায় ১২টি মামলা রয়েছে।

COMMENTS

[gs-fb-comments]