রিফাত হত্যায় জড়িত আরো ১৩ জন শনাক্ত, সর্বত্র রেড অ্যালার্ট

রিফাত হত্যায় জড়িত আরো ১৩ জন শনাক্ত, সর্বত্র রেড অ্যালার্ট

হাঁটু থেকে কোমর পানিতে চট্টগ্রামের বিভিন্ন সড়ক
ছাত্রলীগের দুই নেত্রীর এলোপাতাড়ি মা’র খেয়ে ঢাবি প্রক্টরকে চিঠি আরেক নেত্রীর!!
বীমা কোম্পানিতে আমার জন্যও যেন একটি চাকরি থাকে: প্রধানমন্ত্রী

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল জানিয়েছেন, বরগুনায় প্রকাশ্যে সড়কে স্ত্রীর সামনে রিফাত শরীফকে কুপিয়ে হত্যার ঘটনায় জড়িত মোট ১৩ জনকে শনাক্ত করার হয়েছে। আসামিদের কেউ যাতে দেশ ত্যাগ করতে না পারে, সে জন্য দেশের সব বিমানবন্দর, স্থলবন্দর ও নৌবন্দরে জারি করা হয়েছে রেড অ্যালার্ট।

শুক্রবার (২৮ জুন) ঢাকার নাজিমউদ্দিন রোডে পুরনো কেন্দ্রীয় কারাগারে এক অনুষ্ঠানের পর স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী সাংবাদিকদের এ কথা জানান।

তিনি জানান, গতকাল পর্যন্ত মামলার এজাহারভুক্ত দুই আসামিসহ মোট তিনজনকে গ্রেফতার করা হয়েছে। তবে ধরা পড়েনি মূল খুনি সাব্বির আহমেদ নয়ন, রিফাত ফরাজী ও রিশান ফরাজী।

মন্ত্রী বলেন, ‘এ হত্যাকাণ্ডে জড়িত আছে—এ রকম ১৩ জনকে আমরা শনাক্ত করেছি। এ পর্যন্ত তিনজনকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে।’ পুলিশ কাউকে ছাড় দেবে না মন্তব্য করে তিনি বলেন, ‘ফেনীর মাদরাসাছাত্রী নুসরাত হত্যাকাণ্ডের ঘটনায় আপনারা এর প্রমাণ পেয়েছেন।’

এদিকে, বরগুনার পুলিশ বলছে, মাদকের কারণে নয়, ব্যক্তিগত কারণে রিফাত শরীফকে হত্যা করা হয়েছে। অচিরেই মূল আসামিদের গ্রেপ্তার করা সম্ভব হবে। পাশাপাশি রিফাত হত্যার আসামিরা যাতে দেশ ছেড়ে পালাতে না পারে, সে জন্য আগের দিনই সীমান্তে সতর্কতা জারির নির্দেশ দিয়েছিলেন হাইকোর্ট।

পুলিশ সদর দপ্তরের এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে গতকাল সকালে বলা হয়, ‘আসামিরা যেন দেশ ত্যাগ করতে না পারে, সে জন্য প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নিতে সংশ্লিষ্ট সব বিমানবন্দর, স্থলবন্দর ও নৌবন্দরকে নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে।’

এ বিষয়ে পুলিশ সদর দপ্তরের সহকারী মহাপরিদর্শক (এআইজি) সোহেল রানা সংবাদমাধ্যমকে বলেন, ‘বরগুনা জেলা পুলিশের পাশাপাশি পুলিশ ব্যুরো অব ইনভেস্টিগেশন (পিবিআই), পুলিশের অপরাধ তদন্ত বিভাগ (সিআইডি), র‌্যাব এবং ঢাকা মহানগর পুলিশের (ডিএমপি) কাউন্টার টেররিজম ইউনিট আসামিদের গ্রেপ্তারের লক্ষ্যে কাজ করছে। আশা করছি, সব আসামিকে শিগগিরই আইনের আওতায় আনা সম্ভব হবে।’

COMMENTS

[gs-fb-comments]