জনগণের ক্ষোভের বিস্ফোরণ হলে কেউ পার পাবে না: ডিএমপি কমিশনার

জনগণের ক্ষোভের বিস্ফোরণ হলে কেউ পার পাবে না: ডিএমপি কমিশনার

দেশে রেকর্ড ১৮৭৩ জনের করোনা শনাক্ত, মৃত্যু আরও ২০
এত স্মার্ট আই;জিপির আন্ডারে এমন একজন এসপি থাকাটা লজ্জার : ব্যারিস্টার সুমন
মিন্নিদের মতো এই ১৪ জনেরও যে শা’স্তি চান রিফাতের মা ও বোন

নিরাপদ সড়ক প্রতিষ্ঠায় সংশ্লিষ্টদের এগিয়ে আসার আহ্বান জানিয়ে ডিএমপির কমিশনার আছাদুজ্জামান মিয়া।তিনি বলেছেন, নিরাপদ সড়ক তৈরি করতে না পারলে জনগণের যে ক্ষোভ আমরা অতীতে দেখেছি সেটা কিন্তু থেমে থাকবে না। যখন বিস্ফোরণ হবে, আমরা যারা সংশ্লিষ্ট আছি মালিক-শ্রমিক, আইনশৃঙ্খলা বাহিনী, সরকার কেউ কিন্তু জন-রোষানল থেকে পরিত্রাণ পাব না।

শনিবার (৩১ আগস্ট) দুপুরে রাজধানীর রাজারবাগে পুলিশ লাইন অডিটোরিয়ামে সড়কে শৃঙ্খলা ফেরাতে করণীয় শীর্ষক এক সভায় তিনি এসব কথা বলেন। ডিএমপি কমিশনার বলেন, পৃথিবীর একমাত্র দেশ আমাদের দেশ, যেখানে হাত উঁচিয়ে ট্রাফিক নিয়ন্ত্রণ করা হয়। এখনও পর্যন্ত সিগন্যাল বাতি চালু করতে না পারা বড় ব্যর্থতা মনে করি। যার কারণে সড়কে শৃঙ্খলা আসছে না।

চালকদের উদ্দেশ্যে তিনি বলেন, চালকরা মোবাইল ফোনে কথা বলতে বলতে গাড়ি চালায়। কেনো তাদের ভেতর নাগরিক দায়িত্ববোধ থাকবে না। এটা তো দণ্ডণীয় অপরাধ। দেশে আইন তৈরি হয় দেশের সভ্য মানুষ আইন মানবে সে জন্য। কিন্তু এদেশে হয় উল্টোটি। কেউ আইন মানতে চাই না। তাই আইন মানার সংস্কৃতি সৃষ্টি করতে হবে।

আছাদুজ্জামান মিয়া বলেন, আমরা বলেছি, গাড়ির দরজাটা বন্ধ রাখুন। তা মানা হচ্ছে না। আমরা বলেছি হেলপারে একটা পোশাক দেন। তাও মানা হচ্ছে না। অথচ এটির জন্য প্রয়োজন শুধুমাত্র আন্তরিকতা। কেন আমরা সেটি করছি না। পরিবহন মালিক-শ্রমিকদের সেটিও ভাবতে হবে। সূত্র : সময়ের কণ্ঠস্বর, আরটিভি অনলাইন

COMMENTS

[gs-fb-comments]