উত্তাল বঙ্গোপসাগর, বন্দরে ৩ নম্বর সতর্ক সংকেত

উত্তাল বঙ্গোপসাগর, বন্দরে ৩ নম্বর সতর্ক সংকেত

মোবাইল ব্যাংকিং ক্যাশ আউট চার্জ হাজারে ৭ টাকা!
হাজারীবাগের প্লাস্টিক কারখানার আগুন নিয়ন্ত্রণে
কুষ্টিয়ায় রেস্তোরাঁর পিৎজা-বার্গার খেয়ে ২৫ জন অ’সুস্থ

উত্তর-পশ্চিম বঙ্গোপসাগর ও তৎসংলগ্ন এলাকায় অবস্থানরত লঘুচাপটি বর্তমানে উত্তর-পশ্চিম বঙ্গোপসাগর ও এর সংলগ্ন গাঙ্গেয় পশ্চিমবঙ্গ এলাকায় অবস্থান করছে। এর প্রভাবে উত্তর বঙ্গোপসাগর এলাকায় বায়ুচাপের তারতম্যের আধিক্য বিরাজ করছে। বাংলাদেশের উপকূলীয় এলাকা, উত্তর বঙ্গোপসাগর এবং সমুদ্র বন্দরের উপর দিয়ে ঝড়ো হাওয়া বয়ে যেতে পারে।

চট্টগ্রাম, কক্সবাজার, মোংলা ও পায়রা সমুদ্র বন্দরকে তিন নম্বর স্থানীয় সতর্ক সংকেত দেখাতে বলা হয়েছে। উত্তর বঙ্গোপসাগরে অবস্থানরত মাছ ধরার নৌকা ও ট্রলারগুলোকে পরবর্তী নির্দেশ না দেয়া পর্যন্ত উপকূলের কাছাকাছি থেকে সাবধানে চলাচল করতে বলা হয়েছে। মঙ্গলবার (৩ সেপ্টেম্বর) বাংলাদেশ আবহাওয়া অধিদফতর এ সতর্কবার্তা জারি করেছে।

অন্যদিকে মঙ্গলবার সন্ধ্যা ৬টা পরবর্তী ২৪ ঘণ্টার আবহাওয়ার পূর্বাভাসে বলা হয়েছে, মৌসুমী বায়ু বাংলাদেশের উপর মোটামুটি সক্রিয় এবং উত্তর বঙ্গোপসাগরে মাঝারি থেকে প্রবল অবস্থায় বিরাজমান রয়েছে। এর প্রভাবে রংপুর, রাজশাহী, ঢাকা, ময়মনসিংহ, খুলনা, বরিশাল, চট্টগ্রাম ও সিলেট বিভাগের কিছু কিছু জায়গায় অস্থায়ী দমকা হাওয়াসহ হালকা থেকে মাঝারি ধরনের বৃষ্টি অথবা বজ্রসহ বৃষ্টি হতে পারে। সেই সাথে দেশের কোথাও কোথাও মাঝারি ধরনের ভারী বর্ষণ হতে পারে।

বুধবার সারা দেশের দিন এবং রাতের তাপমাত্রা প্রায় অপরিবর্তিত থাকতে পারে বলেও জানিয়েছে আবহাওয়া অফিস। সংস্থাটি আরও জানায়, বুধ ও বৃহস্পতিবার আবহাওয়ার সামান্য পরিবর্তন হতে পারে। তার পরবর্তী ৫ দিনে বৃষ্টিপাত প্রবণতা বৃদ্ধি পেতে পারে। বুধবার ঢাকায় সূর্য উঠবে ভোর ৫টা ৪১ মিনিটে এবং ডুববে সন্ধ্যা ৬টা ১৪ মিনিটে।

বাংলাদেশে বাড়ছে ঝড়-জলোচ্ছ্বাসের সম্ভাবনা

জলবায়ু পরিবর্তনের কারণে চলতি শতাব্দীর শেষে বাংলাদেশের উপকূলে সমুদ্রপৃষ্ঠের উচ্চতা দেড় মিটার বাড়তে পারে। একইসঙ্গে ২১০০ সালের পর প্রতি বছর ঝড় ও জলোচ্ছ্বাস তিন থেকে ১৫ বার আঘাত হানার আশঙ্কা রয়েছে। সোমবার সংবাদমাধ্যম বিবিসির এক প্রতিবেদনে এ তথ্য উঠে এসেছে। বাংলাদেশ পরিস্থিতি নিয়ে যুক্তরাষ্ট্রের গবেষক জয়েস জে চেনের গবেষণালব্ধ মতামত তুলে ধরা হয়েছে ঐ প্রতিবেদনে।

এতে বলা হয়েছে, জলবায়ু পরিবর্তনের কারণে বাংলাদেশে প্রতি বছর এক লাখ মানুষ স্থানান্তরিতের পাশাপাশি লাখ লাখ টন ফসল নষ্ট হচ্ছে। যা ভবিষ্যতে আরও বৃদ্ধি পাবে। এমনকি পানি বৃদ্ধির কারণে উপকূলীয় অঞ্চল বসবাসের অযোগ্য হবে বলেও উল্লেখ করা হয়।

COMMENTS

[gs-fb-comments]