খাদ্যের অপচয় রোধে গবেষণার আহ্বান পরিকল্পনামন্ত্রীর

খাদ্যের অপচয় রোধে গবেষণার আহ্বান পরিকল্পনামন্ত্রীর

শপথ নিলেন নুরুজ্জামান বিশ্বাস এমপি হিসেবে
খালেদা জিয়ার কারামুক্তি দিবস আজ
আমার কাজের মেয়েও ইন্টারনেট ব্যবহার করে: স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী

উৎপাদন পরবর্তী খাদ্যের অপচয় রোধে গবেষণার তাগিদ দিয়ে পরিকল্পনামন্ত্রী এম এ মান্নান বলেছেন, ‘পোস্ট হারভেস্ট লস্ট কীভাবে কমানো যায়, এ বিষয়ে গবেষণা করুন। আমাদের প্রধানমন্ত্রী প্রায়ই ক্ষোভ প্রকাশ করেন কেন বেশি গবেষণা হচ্ছে না। গবেষণার জন্য এ সরকার উন্মুখ হয়ে আছে।’

সোমবার রিসোর্স ডেভেলপমেন্ট ফোরামের পুরস্কার বিতরণী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে কৃষি গবেষকদের প্রতি এই আহ্বান জানান পরিকল্পনামন্ত্রী। রাজধানীর শেরে বাংলা নগরের এনইসি সম্মেল কক্ষে এই সভা অনুষ্ঠিত হয়। অনুষ্ঠানে সাধারণ অর্থনীতি বিভাগের (জিইডি) সদস্য ড. অধ্যাপক শামসুল আলম ও কৃষি গবেষক এমএ রহিমকে ‘রিসোর্স ডেভেলপমেন্ট অ্যাওয়ার্ড-২০১৯’ দেওয়া হয়। কৃষি গবেষণায় অবদান রাখার জন্য তাদের সম্মাননা ক্রেস্ট তুলে দেন পরিকল্পনামন্ত্রী।

গবেষণার জন্য বেশি প্রতিষ্ঠান গড়ে তোলার জন্য প্রধানমন্ত্রীর তাগিদ রয়েছে জানিয়ে এম এ মান্নান বলেন, ‘দেশে আরও বেশি প্রতিষ্ঠান গড়ে তুলতে বলেছেন প্রধানমন্ত্রী। কেউ কেউ বলেন, এত প্রতিষ্ঠান কেন? ১৬ কোটি মানুষের দেশ এটা। আনুপাতিক হিসাব করলে আমরা এখনো ওই পর্যায়ে যাইনি, যে লেভেলে পশ্চিমারা আছে। তাই প্রধানমন্ত্রী বলেছেন, আরও বেশি প্রতিষ্ঠান গড়তে হবে। মান নিয়ে অনেকে উদ্বেগ প্রকাশ করেছেন। প্রধানমন্ত্রীও করেন। তার ধারণা, চাপের মুখে মানোন্নয়ন হবে।’

পরিকল্পনামন্ত্রী বলেন, ‘বাংলাদেশের কৃষিখাতে সত্যিকারের বিপ্লব হয়েছে। এই বিপ্লবে গবেষকদের অবদান ব্যাপক।’

বাংলাদেশকে খাদ্যে স্বয়ংসম্পন্ন করা ও বছরে কয়েকবার ফলন পাওয়ায় কৃষি গবেষকদের অবদানের স্বীকৃতি দিয়ে এম এ মান্নান বলেন, ‘কাঁঠালকে আরেকটু ছোট কীভাবে করা যায় আপনারা তা গবেষণা করতে পারেন। এখন কাঁঠালের আকার অনেক বড় হওয়ায় প্রায় ৪০ শতাংশ নষ্ট হয়ে যাচ্ছে।’

অনুষ্ঠানে বাংলাদেশ কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ের ভিসি অধ্যাপক লুৎফুল হাসান ও শেরে বাংলা কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ের ভিসি অধ্যাপক ড. কামাল উদ্দিন আহাম্মদসহ আরও অনেকে উপস্থিত ছিলেন।

COMMENTS

[gs-fb-comments]