পাপিয়া ইস্যুতে ওয়েস্টিনের তিন কর্মকর্তা চাকরিচ্যুত

পাপিয়া ইস্যুতে ওয়েস্টিনের তিন কর্মকর্তা চাকরিচ্যুত

নিয়োগ দেবে বাংলাদেশ ব্যাংক
ওসি প্রদীপসহ ৩ আ’সামিকে নিয়ে সেই ঘটনাস্থলে র‌্যা’ব
আটকের ৮ মাস পর জলিলকে ক্রসফায়ারে দেন ওসি প্রদীপ

বিলাসবহুল প্রেসিডেন্সিয়াল স্যুইট ভাড়া নিয়ে যুব মহিলা লীগের বহিষ্কৃত নেত্রী শামীমা নূর পাপিয়ার অসামাজিক কার্যকলাপ চালানোর ঘটনায় গুলশানের অভিজাত হোটেল ওয়েস্টিনের তিন কর্মকর্তাকে চাকরিচ্যুত করেছে ওয়েস্টিন কর্তৃপক্ষ।

নাম না প্রকাশের শর্তে একটি সূত্র ঢাকাটাইমসকে বিষয়টি নিশ্চিত করেছে। যাদের বহিষ্কার করা হয়েছে তাদের নাম-পরিচয়ও জানাতে চাননি সূত্রটি।

একটি সূত্র জানায়, গতকাল মঙ্গলবার ওয়েস্টিন কর্তৃপক্ষ তিনজনকে চাকরিচ্যুত করে। তবে বুধবার বিষয়টি জানাজানি হয়। এই বিষয়ে হোটেলটির পক্ষ থেকে এখনো আনুষ্ঠানিকভাবে কিছু জানানো হয়নি।

চাকরিচ্যুতের বিষয়ে জানতে চাইলে ওয়েস্টিনের কোনো পর্যায়ের কর্মকর্তাই কথা বলতে রাজি হননি। নাম প্রকাশ করতে অনিচ্ছুক হোটেলটির ফ্রন্টডেস্কের এক কর্মকর্তা ঢাকাটাইমসকে জানান, এমন একটি বিষয় তারা শুনেছেন। তবে চাকরিচ্যুতদের নাম বা পদবী সম্পর্কে তারা জানেন না।

ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাদের সঙ্গে কথা বলতে চাইলে তিনি বলেন, ‘সবাই ব্যস্ত আছেন।’ প্রতিবেদকের নাম-ঠিকানা নিয়ে তিনি বলেন, ‘পরবর্তীতে এ ব্যাপারে হোটেল কর্তৃপক্ষ যোগাযোগ করবে’।

২৩ তলাবিশিষ্ট ঢাকা ওয়েস্টিন হোটেলের লেভেল-২২ এ ১ হাজার ৪১১ বর্গফুট জায়গাজুড়ে বিলাসবহুল প্রেসিডেন্সিয়াল স্যুইট। সেখানে বসে নিজের সাম্রাজ্য চালাতেন বহিষ্কৃত যুব মহিলা লীগ নেত্রী শামীমা নূর পাপিয়া।

মাসের পর মাস হোটেলটির প্রেসিডেন্সিয়াল স্যুইট ভাটা নিয়ে অসামাজিক কার্যকলাপ চালাতেন তিনি। সেখানে আসতেন সরকারি বিভিন্ন আমলা, রাজনীতিবিদ ছাড়াও প্রশাসনের কর্মকর্তারা।

হোটেল কর্তৃপক্ষকে অন্ধকারে রেখে দীর্ঘদিন এসব কর্মকাণ্ড অব্যাহত রাখা সম্ভব নয় বলে বলছেন তদন্ত সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তারা। অথচ পাঁচ তারকা এই হোটেলে বোর্ডারদের প্রতিদিনকার তালিকা সংশ্লিষ্ট থানায় জমা দেয়ার নিয়ম রয়েছে। কিন্তু হোটেল কর্তৃপক্ষ ঠিকমতো তা জমা দেয়নি বলে অভিযোগ ওঠে।

এদিকে সামাজিক মাধ্যমে ভাইরাল হওয়া একটি ভিডিওতে দেখা যায়, ওয়েস্টিনের মালিক নূর আলীকেও হোটেলের একটি স্যুইটে পাপিয়াসহ বেশ কয়েকজন তরুণীর সঙ্গে খোশমেজাজে গল্প করতে। এমনকি পাপিয়ার সঙ্গে রাজনীতি, নির্বাচনসহ নূর আলী নানা বিষয়ে খোলামেলা কথা বলছেন।

হোটেলটির মালিকের সঙ্গে পাপিয়ার পাশের সোফায় হাসিমুখে বসে থাকতে দেখা যায় অল্পবয়সী বেশ কয়েকজন তরুণীকে।

তবে এ ব্যাপারে হোটেলটির মালিক নূর আলীর কোনো প্রতিক্রিয়া এখনও গণমাধ্যমে আসেনি। তদন্ত সংশ্লিষ্টরা মনে করছে, পাপিয়া ইস্যুতে হোটেল মালিকের সম্পৃক্ততা ঢাকতেই তিনজনকে চাকরিচ্যুত করা হয়েছে।

আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর এক ঊধ্র্বতন কর্মকর্তা ঢাকাটাইমসকে বলেন, ‘হোটেল থেকে কাদেরকে চাকরিচ্যুত করা হয়েছে বিষয়টি আমরা অনুসন্ধান করছি। হোটেলে বসে পাপিয়ার সাম্রাজ্য চালাতে যারা সাহায্য করেছে সবাইকে শীঘ্রই আইনের আওতায় আনা হবে।’

যুব মহিলা লীগের বহিষ্কৃত নেত্রী পাপিয়া গ্রেপ্তার হওয়ার পর আলোচনা-সমালোচনার কেন্দ্রে পরিণত হয়েছে দেশের অন্যতম পাঁচ তারকা হোটেল ওয়েস্টিন। অভিযোগ আছে, নিয়মনীতির তোয়াক্কা না করেই সেখানে দেশ-বিদেশের তরুণীদের নিয়ে এসে চলছিল নানা অসামাজিক কর্মকাণ্ড। তবে এ নিয়ে হোটেল কর্তৃপক্ষের কোনো বাধা-নিষেধ ছিল না।

COMMENTS

[gs-fb-comments]