তমা মির্জা এবং তার স্বামীর পাল্টাপাল্টি

তমা মির্জা এবং তার স্বামীর পাল্টাপাল্টি

ঢালিউডে নতুন জুটি রোশান-রাহা
আবারও স্টেশন চত্বরে ফিরলেন সেই রাণু মন্ডল, দিন চলছে দয়া-দাক্ষিণ্যের উপর
অপূর্ব সুস্থ হওয়ায় মা কামাখ্যাকে পূজা দিলেন ভক্ত

বাংলাদেশি বংশোদ্ভূত কানাডার নাগরিক হিশাম চিশতীকে ২০১৯ সালের ৭ মে বিয়ে করেছিলেন তমা মির্জা। কিন্তু বিয়ের পর পর দুবাইয়ে হানিমুনও থেকে ফেরার পর তাদের বিচ্ছেদের গুঞ্জন শোনা যায়।

আর এবার এই নায়িকা এবং তার স্বামী পরস্পরের বিরুদ্ধে মামলা করেছেন। দুজনের মধ্যে তমা ৫ ডিসেম্বর রাত ৩টায় রাজধানীর বাড্ডা থানায় নারী ও শিশু নি;র্যা;ত;ন দমন আইন, ডিজিটাল নিরাপত্তা আইন এবং যৌতুক জন্য মার;;পি;টসহ হু;ম;কি প্রদানের অ;প;রাধে মা;ম;লাটি করে;ন। আর ৬ ডিসেম্বর হিশাম হ;ত্যা;চে;ষ্টার অ;ভিযো;গে মামলা করেন।

মা;ম;লার বিষয়ে জানতে চাইলে তমা মির্জা বলেন, হিশাম তাকে প্রায়ই যৌতুকের জন্য আমাকে নি;তন করত এমনকি একাধিকবার মার;ধ;রও করেছে এবং সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমেও সুনাম ক্ষুণ্ণ করার চেষ্টা করেছে। তাই বাধ্য হয়ে তিনি নিরাপত্তার জন্য আইনের দ্বারস্থ হয়েছেন।

অপরদিকে চিশতি ৬ ডিসেম্বর তমা মির্জাকে এক নম্বর আসামি, তার বাবা-মা, ভাইসহ চারজনকে আসামি করে মা;ম;লা করেছে। মা;ম;লা;র এজাহারে বলা হয়েছে, বিয়ের পর বাবা-মায়ে;র প্ররো;চনা;য় হিশামের কাছ থেকে মোট ২০ লাখ টাকা ধার

হিসেবে নেন তমা। গত ২৯ সেপ্টেম্বর হিশাম কানাডা থেকে ফিরে তমাকে তার নিজের বাসায় এসে থাকতে বলেন। কিন্তু

তিনি বাবার বাসাতেই থাকেন। গত ৫ ডিসেম্বর রাত ৩টার দিকে তমা মির্জার বাবার বাড্ডার বাসায় যেতে বলা হয় হিশামকে। সেখানে নানা বিষয়ে আলোচনার পর ধার নেওয়া ২০ লাখ টাকা চাইলে বাসার সদস্যদের সঙ্গে কথা কাটাকাটি হয় তার। এর একপর্যায়ে বাড়ির সদস্যরা ওড়না দিয়ে পেঁচিয়ে তাকে করার চেষ্টা করে।

COMMENTS

[gs-fb-comments]