তুমি আমার মায়ের রোমান্টিক পার্টটা করছো, দীঘিকে প্রধানমন্ত্রী

তুমি আমার মায়ের রোমান্টিক পার্টটা করছো, দীঘিকে প্রধানমন্ত্রী

এবার সয়াবিন তেলের দাম নিয়ে যা বললেন ব্যারিস্টার সুমন
সাবেক ছাত্রলীগ নেতা গোলাম রাব্বানী করোনায় আক্রান্ত
দুই নেত্রীকে নিয়ে বো’মা ফাটালেন জাফরুল্লাহ !

দীঘিকে রোববার ফোন করেই বোঝা গেল বেশ ফুরফুরে মেজাজে আছেন। এপাশ থেকে ‘কেমন আছেন’ জিজ্ঞাসা করতেই হাসি হাসি কণ্ঠে দীঘির উত্তর ‘বেশ ভালো’। তবে শীতের দিনে শীতের আমেজ নেই বলে কিছুটা মন খারাপের কথা জানালেন দীঘি। বললেন, ‘শীতের পোশাক পরলে গরম লাগছে, আবার না পরলেও লাগছে শীত। কি মুস্কিল!’

শীত নিয়ে দীঘির এই মন্তব্যের পরই কথার মোড় ঘুরে যায় প্রধানমন্ত্রীর বাসভবনের দিকে। শনিবার দিনটি বেশ সুন্দর কেটেছে দীঘির। প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে দেখা করতে তার বাসভবনে গিয়েছিলেন। সেখানে দীর্ঘক্ষণ প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সঙ্গে থেকেছেন, মন্ত্রমুগ্ধ হয়ে তার কথা শুনেছেন, জেনেছেন বঙ্গবন্ধুর পরিবার নিয়ে অনেক কথা। এ সময় হাজির ছিলেন বঙ্গবন্ধুকন্যা শেখ রেহানাও।

বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জীবনী নিয়ে ‘বঙ্গবন্ধু’ শিরোনামে যে বায়োপিক নির্মিত হচ্ছে, তাতে বঙ্গবন্ধুর স্ত্রী রেনুর প্রথম জীবনের চরিত্রে অভিনয় করবেন দীঘি। ভারতের মুম্বাইয়ে ছবিটির শুটিং শুরু হচ্ছে আগামী ১৯ জানুয়ারি। ছবির শুটিং শুরুর আগে ৯ জানুয়ারি দুপুরে প্রধানমন্ত্রীর আমন্ত্রণে তার বাসভবনে সাক্ষাৎ করতে যান ছবিটিতে অভিনয় করতে যাওয়া প্রধান চরিত্রের শিল্পীরা। তাদের মধ্যে দীঘি ছাড়াও ছিলেন আরিফিন শুভ, নুসরাত ইমরোজ তিশা, নুসরাত ফারিয়া।

বাসভবনে যাওয়ার পর প্রধানমন্ত্রী সবাইকে চরিত্রগুলো সম্পর্কে ব্রিফ করেন বলে জানান দীঘি। তিনি বলেন, ‘প্রধানমন্ত্রী সবাইকে যার যার চরিত্রগুলো সম্পর্কে সংক্ষিপ্ত ব্রিফ করেছেন। একেবারে সাধারণ মানুষ হয়ে মিশেছেন আমাদের সঙ্গে।’

দীঘি আরও বলেন, গতকাল প্রধানমন্ত্রী আমাক দেখে জানতে চান আমি কোন চরিত্রটা করছি। আমি বলি, আপনার মায়ের ইয়াং পার্ট। তখন প্রধানমন্ত্রী বলে উঠেন, ‘ও বাবা, তুমি তাহলে আমার মায়ের অনেক রোমান্টিক পার্টটা করছো। আমার মা কিন্তু বেশ রোমান্টিক ছিলেন। চরিত্রটা ভালো করে করো।’

তবে দীঘি প্রধানমন্ত্রীর মায়ের যে সময়ের চরিত্রটাতে অভিনয় করছেন সে সময়টা প্রধানমন্ত্রীর ‘অদেখা’। তারপরও দীঘি জানতে চাইলে পরিবার থেকে যে তথ্য প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা পেয়েছেন সেটাই অবগত করেছেন দীঘিকে। পাশাপাশি শেখ রেহানাও অনেক বিষয়ে দীঘিকে তার চরিত্র নিয়ে ব্রিফ করেন বলে জানান দীঘি।

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা দীঘিকে আগে থেকেই চেনেন বলে উল্লেখ করে দীঘি বলেন, তার হাত থেকে দুইবার জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার গ্রহণ করেছি। সে সময় থেকেই তিনি আমাকে চেনেন। এর আগে ছোটবেলায় যতবার আমি গণভবনে গিয়েছি, প্রতিবারই তিনি আমাকে নিয়ে নিয়ে ঘুরেছেন। তিনি আমাকে ছোটবেলা থেকেই বেশ আদর করেন।

দীঘি জানান, আগামী ১৯ জানুয়ারি ভারতের মুম্বাইয়ে কয়েকদিনের একটা কর্মশালায় অংশ নেবেন ছবিটির অভিনেতা-অভিনেত্রীরা। তারপর ১০ এপ্রিল থেকে টানা শুটিং। বায়োপিকটি পরিচালনা করছেন ভারতীয় চলচ্চিত্র পরিচালক শ্যাম বেনেগাল।

সূত্র : সমকাল

COMMENTS

[gs-fb-comments]