কারিশমা সম্পর্কে বিস্ফোরক তথ্য রাভিনার

কারিশমা সম্পর্কে বিস্ফোরক তথ্য রাভিনার

সানিয়ার বোনকে বিয়ে করছেন আজহারপুত্র
‘শাকিবের সঙ্গে আমার তুলনা করলে তো হবে না’
কো’রান-হাদিসের জ্ঞান থেকে আ’মার মনে হয়েছে মি’ডিয়াতে আমা’র কাজ করা ঠিক নাঃ সুজানা

একসময়ে বলিউডের প্রথম সারির অভিনেত্রী ছিলেন করিশ্মা কাপুর ও রাভিনা ট্যান্ডন। একই ছবিতে অভিনয় করেছিলেন দুজনে। ছবির নাম ছিল আন্দাজ আপনা আপনা। কিন্তু সেই ছবিতে একসঙ্গে অভিনয় করলেও, দুই নায়িকার মধ্যে বাক্যালাপ ছিল না। এমনকী দুজনের মধ্যে ঠান্ডা যুদ্ধ চলত সব সময়। সম্প্রতি এক সাক্ষাৎকারে কারিশমাকে নিয়ে বিস্ফোরক মন্তব্য করেছেন রাভিনা।

কারিশমাকে উদ্দেশ্য করে রাভিনা বলেন, আমি নাম করব না। তবে সেই নায়িকা নিজে নিরাপত্তাহীনতায় ভুগত বলে আমায় চারটে ছবি থেকে বাদ দিয়েছিল। আমি তার সঙ্গে একটি ছবিও করেছিলাম। সে প্রযোজক আর নায়কের ঘনিষ্ঠ ছিল। এইগুলি হয়েই থাকে। কিন্তু এই ধরনের খেলায় আমি জড়াচ্ছি না।

ভারতীয় সংবাদমাধ্যমগুলো জানিয়েছে, রাভিনা ও কারিশমা দুজনেই সেই সময়ে অজয় দেবগণকে পছন্দ করতেন। দুজনের মধ্যে দূরত্বের সবচেয়ে বড় কারণ নাকি এটিই ছিল। কারিশমার সঙ্গে বেশ কিছুদিন সম্পর্কে ছিলেন অজয় দেবগণ। এক হি রাস্তা, দিলওয়ালে ও গ্যায়ের ছবিতে অভিনয় করেছিলেন অজয় ও রাভিনা। তাদের জুটি পছন্দ করেছিল দর্শক। আর তাই নাকি এর পরে একসঙ্গে কোনো ছবিতে রাভিনার সঙ্গে অজয়কে জুটি বাঁধতে দেননি কারিশমা।

পরবর্তী কালে শাহরুখ খানের হোলি পার্টিতে নাকি রাভিনার সঙ্গে ছবি তুলতেও রাজি হননি কারিশমা। এই প্রসঙ্গে রাভিনা বলেন, কারিশমার সঙ্গে ছবি তুলে আমি সুপারস্টার হওয়া যায় এমন তো না। আমার জীবনে ওর সেভাবে কোনো অবস্থানই নেই। আমি একজন পেশাদার মানুষ। আমার কোনো যায় আসে না। তেমন হলে আমি একটা ঝাড়ুর সঙ্গে বরং ছবি তুলব। কারিশমা আমার এমন কোনো বন্ধু না। অজয়ও নয়। তবে পেশার প্রশ্ন এলে আমি ওদের সঙ্গে কাজ করতে রাজি। কাজের বিষয় আমি ইগোকে গুরুত্ব দিই না।

রাভিনা দাবি করেন, কারিশমা নাকি তাকে চার চারটি বড় প্রজেক্ট থেকে বাদ দিয়েছেন। বিভিন্ন প্রযোজক ও অভিনেতাদের সঙ্গে কারিশমার ঘনিষ্ঠ সম্পর্ক ছিল। সেই কারণেই তাকে পরপর চারটি বড় প্রজেক্ট থেকে কারিশমা বাদ দিয়েছিলেন।

যদিও রাভিনার অভিযোগের ভিত্তিতে এ বিষয়ে পালটা কোনও মন্তব্য করেননি কারিশমা কাপুর। সম্প্রতি ‘মেন্টালহুড’ ওয়েব সিরিজের মাধ্যমে ফের কামব্যাক করছেন কারিশমা।

COMMENTS

[gs-fb-comments]