কঙ্গনার নামে মানহানির মামলা

কঙ্গনার নামে মানহানির মামলা

দেব-রুক্মিণী জুটি ভেঙে যাচ্ছে
মাত্র কয়েক মাস বাঁচ’বেন ক্যা’ন্সার আ’ক্রান্ত সঞ্জয় দত্ত!
দেবরদের আপন হয়ে আসছেন মৌসুমী

স্বপ্নে গড়া প্রযোজনা সংস্থা মণিকর্ণিকা ফিল্মসের অফিস ভেঙে দেয়ার ঘটনায় মুম্বাইয়ের মুখ্যমন্ত্রী উদ্ধব ঠাকরের ওপর বেজায় ক্ষেপেছেন অভিনেত্রী কঙ্গনা রানাউত। টুইটারে তিনি উদ্ধবকে ‘তুই’ বলে সম্মোধন করেন। লেখেন, উদ্ধব ঠাকরে আজ আমার অফিস ভেঙেছিস, কাল তো অহংকার ভাঙবে। পাশাপাশি মুখ্যমন্ত্রীকে বলিউড মাফিয়া বলেও কটাক্ষ করেন।

কঙ্গনার ওই স্ট্যাটাস চোখে পড়তেই বৃহস্পতিবার কঙ্গনার বিরুদ্ধে মুম্বাইয়ের ভিকরোলি আদালতে মানহানির মামলা করেছেন নিতিন মানে নামের এক আইনজীবী। মুখ্যমন্ত্রী উদ্ধব ঠাকরেকে অসম্মান করে কথা বলার অধিকার কঙ্গনার নেই বলে উল্লেখ করেছেন ওই আইনজীবী। এই ঘঠনায় তিনি কঙ্গনার শাস্তি দাবি করেছেন।

গত মঙ্গলবার বেআইনি নির্মাণের অভিযোগ তুলে পালি হিলে অবস্থিত কঙ্গনার মণিকর্ণিকা ফিল্মসের অফিসে নোটিশ ঝুলিয়ে দেয় মুম্বাই পুরসভা। ২৪ ঘণ্টার মধ্যে সেই নোটিশের জবাব দিতে বলা হয়েছিল অভিনেত্রীকে। বুধবার সকাল পর্যন্ত তা না পাওয়ায় বুলডোজার নিয়ে কঙ্গনার অফিস ভাঙা শুরু করে বিএমসি।

ওইদিনই বম্বে হাইকোর্টের দ্বারস্থ হন নায়িকা। অনলাইন শুনানিতে কঙ্গনা জানান, তার কাছে নির্মাণ সংক্রান্ত সব কাগজপত্র রয়েছে। এরপর কঙ্গনার আইনজীবীর আর্জি মেনে হাইকোর্ট বলে, প্রাথমিক ভাবে মনে হচ্ছে, যেভাবে ভাঙার কাজ এগিয়েছে তা আইনসম্মত নয়। যার ফলে নোটিশের জবাব দিতে আগামী ২২ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত কঙ্গনাকে সময় দেয় আদালত।

ভাঙচুরের পর বৃহস্পতিবার বিকালে পালি হিলে নিজের অফিস মণিকর্ণিকা ফিল্মসে যান অভিনেত্রী। সঙ্গে ছিলেন তার দিদি রাঙ্গোলী চান্ডেল। দিদির সঙ্গে গোটা অফিস ঘুরে দেখেন নায়িকা। সবকিছু দেখে তিনি নাকি খুব ভেঙে পড়েন। যদিও কঙ্গনার অফিস ভাঙা-কাণ্ডে বলিউড তারকাদের দুই-একজন বাদে বাকিরা মুখে কুলুপ এটে আছেন।

COMMENTS

[gs-fb-comments]