‘ট্রাম্প বিদায় নিয়েছেন, এবার মোদী সরকারও বিদায়ের পালা’

‘ট্রাম্প বিদায় নিয়েছেন, এবার মোদী সরকারও বিদায়ের পালা’

আমেরিকার নির্বাচনঃ মুসলিম প্রার্থীদের জয়জয়কার
বদলে যাচ্ছে মধ্যপ্রাচ্যের রাজনৈতিক সমীকরণ
চূড়ান্ত বিজয়ের আগেই ট্রানজিশনাল ওয়েবসাইট চালু করলেন বাইডেন

আসল সমস্যাগুলো তুলে ধরায় ‘মহাজোট’-এর মুখ্যমন্ত্রী পদপ্রার্থী তেজস্বী যাদবকে অভিনন্দনও জানিয়েছেন তিনি।

সম্প্রতি ব’ন্দিদশা কা’টিয়ে বেরিয়েছেন মেহবুবা মুফতি। তার পর থেকে উপত্যকার বিভিন্ন রাজনৈতিক দলের সঙ্গে দফায় দফায় বৈঠক করেছেন। উপত্যকায় বসবাসকারী বিভিন্ন সম্প্রদায়ের মানুষের সঙ্গেও আলোচনায় বসেছেন। সেটা নিয়েই

সোমবার সংবাদমাধ্যমের মুখোমুখি হয়েছিলেন মেহবুবা মুফতি। সেখানে তিনি বলেন,‘আমেরিকায় কী হল দেখলেন তো? ট্রাম্প হেরে গিয়েছেন। এ বার বিজেপিও যাবে।’

বিহার বিধানসভা নির্বাচন নিয়েও এ দিন মন্তব্য করেন মেহবুবা। সমস্ত বুথফেরত সমীক্ষাই এখনো পর্যন্ত তেজস্বীকে এগিয়ে রেখেছে। সেই নিয়ে মেহবুবা বলেন,‘তেজস্বী যাদবকে অভিনন্দন জানাই। নির্বাচনে আসল সমস্যাগুলো তুলে ধরেছেন উনি। একেবারে সঠিক পথে হেঁটেছেন।’

৩৭০ ধারা তুলে নেয়ার সিদ্ধান্তের বি’রু’দ্ধে ইতোমধ্যেই একজোট হয়েছে উপ’ত্যকার বি’রো’ধী রাজনৈতিক দলগুলো। সম্প্রতি কাশ্মিরে ভারতীয় নাগরিকদের জমি কেনার ছাড়পত্রও দিয়েছে মোদি সরকার। সে নিয়েও এ দিন মুখ খোলেন

মেহবুবা। তিনি বলেন,‘আমাদের সম্পদ নিলামে তোলা হচ্ছে। কাশ্মিরি পণ্ডিতদের কথাই ভাবুন। তাদেরকেও তো অনেক বড় বড় প্রতিশ্রুতি দিয়েছিল বিজেপি। কিন্তু গোটা উপত্যকাকেই নিলামে তুলে দিয়েছে তারা।’

কেন্দ্রের ৩৭০ ধারা বিলোপের সিদ্ধান্তেরও তীব্র সমালোচনা করেন মেহবুবা। তিনি বলেন,‘তেরঙ্গার মর্যাদা রক্ষায় হাজার হাজার কাশ্মিরিও প্রাণ বিস’র্জন দিয়েছেন। ৩৭০ ধারার সঙ্গে হিন্দু-মুসলিম সং’শ্লিষ্টতা নেই। কাশ্মিরি পরিচয় র’ক্ষা করতেই সেটি আনা হয়েছিল।

তা তুলে নেয়ায় উপত্যকার মানুষ এখন ভবিষ্যত নিয়ে দুশ্চিন্তায় ভুগছেন। ওরা শুধু ৩৭০ ধারা খর্বই করেনি, আম্বেদকারের সংবিধানেরও চরম অবমাননা করেছে।’ আনন্দবাজার

COMMENTS

[gs-fb-comments]