করো;নার হানায় ইতালিতে ফের বাড়ল লকডাউন

করো;নার হানায় ইতালিতে ফের বাড়ল লকডাউন

মালয়েশিয়ায় ছয় নৌকাসহ ৬০ চীনা অনুপ্রবেশকারী আটক
এবার বিয়ের পরিকল্পনা নিউজিল্যান্ডের প্রধানমন্ত্রীর
১৪ লাখ সদস্যের ট্রাম্প সমর্থকের গ্রুপ সরালো ফেসবুক

প্রাণঘাতী করো’নাভাইরাসের প্রকোপ বাড়তে থাকায় লকডাউনের বিধিনি’ষেধ আবারও বাড়িয়েছে ইতালি। সংক্রমণের

ঊর্ধ্বগতির কারণে দেশটির বেশ কিছু অঞ্চলকে ‘রেড জোন’ ঘোষণা করা হয়েছে।

করোনা সংক্রমণের হারের ওপর ভিত্তি করে তিনস্তরের লকডাউন পদ্ধতি চালু করেছে ইতালি। এর মধ্যে লাল চিহ্নিত এলাকা বা রেড জোনে সংক্রমণ বেশি থাকায় বিধিনি’ষেধ সবচেয়ে বেশি।

কমলা বা অরেঞ্জ জোনে ঝুঁকি মধ্য মানের এবং হলুদ রং বা ইয়েলো জোনে করো’নাভাইরাস সংক্রমণের ঝুঁকি তুলনামূলক কম।

রেড জোন এলাকাগুলো স্বয়ক্রিয়ভাবেই আংশিক লকডাউন হয়ে যায়। সেখানে মুদি দোকান, ফার্মেসির মতো অতিজরুরি ব্যবসাপ্রতিষ্ঠান ছাড়া বাকি সব বন্ধ করে দেয়া হয়।

ইতালির ন্যাশনাল হেলথ ইনস্টিটিউটের পরিচালক জিয়ানি রেজা জানান, দেশটিতে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে হাসপাতালে রোগী ভর্তির সংখ্যা আশঙ্কাজনক হারে বেড়ে যাওয়াায় কঠোর বিধিনি’ষেধ ফিরিয়ে আনতে হয়েছে।

ইতালিতে প্রতি এক লাখ মানুষের মধ্যে করোনায় আক্রান্তের হার ৬৫০ জনে পৌঁছে গেছে।

সবচেয়ে গুরুতর অবস্থা ক্যাম্পানিয়া অঞ্চলে। সেখানে গত ১ অক্টোবর হাসপাতালে করোনা রোগী ভর্তি ছিলেন ৪২১ জন। গত শুক্রবার এই সংখ্যা এসে দাঁড়িয়েছে ২ হাজার ১৫৩ জনে। এদের মধ্যে ১৮৩ জন নিবিড় পরিচর্যা কেন্দ্রে (আইসিইউ) রয়েছেন। অথচ ছয় সপ্তাহ আগেও সেখানে আইসিইউতে রোগী ছিলেন মাত্র ৩৮ জন।

করোনা সংক্রমণের হালনাগাদ তথ্যপ্রকাশকারী ওয়েবসাইট ওয়ার্ল্ডোমিটারের তথ্যমতে, ইতালিতে এপর্যন্ত করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন ১১ লাখ ৭ হাজার ৩০৩ জন। মারা গেছেন ৪৪ হাজার ১৩৯ জন।

গত ২৪ ঘণ্টায় দেশটিতে নতুন রোগী শনাক্ত হয়েছেন ৪০ হাজারের বেশি, মারা গেছেন অন্তত ৫৫০ জন।

COMMENTS

[gs-fb-comments]