করোনা মোকাবিলায় ধনীদের ওপর বাড়তি কর আ’রোপ আর্জেন্টিনায়

করোনা মোকাবিলায় ধনীদের ওপর বাড়তি কর আ’রোপ আর্জেন্টিনায়

লন্ডন থেকে যাত্রী নিয়ে সিলেটে বিমান আসছে সোমবার
ধরাশয়ী ফ্রান্সের সেই ওয়েবসাইট বাংলাদেশিদের দেড় ঘণ্টার হামলায়
ঘূর্ণিঝড় আম্পানের প্রভাব: কলকাতায় বিদ্যুৎ ও পানি সংকট

মহামারি মোকাবেলায় সবচেয়ে ধনী ব্যক্তিদের উপর বাড়তি কর আরোপ করেছে আর্জেন্টিনা। এই অর্থ করোনাভাইরাসের সংক্রমণ মোকাবিলায় দরকারি চিকিৎসা ও ত্রাণ সামগ্রীর জন্য ব্যাবহার করা হবে।

নতুন এই করের নাম দেয়া হয়েছে ‘মিলিয়নিয়ার ট্যাক্স’। দেশটির সংসদে নতুন কর বিষয়ক একটি বিলের পক্ষে ৪২টি ভোট পড়েছে। আর বিপক্ষে ভোট পড়েছে ২৬টি।

দেশটির যেসব ধনী ব্যক্তিদের আর্জেন্টাইন মুদ্রায় ২শ মিলিয়ন পেসো সমপরিমাণ সম্পত্তি রয়েছে তাদের উপর এই নতুন কর আরোপ করা হয়েছে। এক্ষেত্রে দেশটির করদাতাদের ০.৮ শতাংশ অর্থাৎ ১২ হাজারের মতো ব্যক্তি এর আওতায় পড়বেন।

তাদের দেশের অভ্যন্তরে যে সম্পদ রয়েছে তার সাড়ে তিন শতাংশ এবং দেশের বাইরের সম্পদের উপর ৫.২৫ শতাংশ কর দিতে হবে। দেশটির মধ্য-বামপন্থী প্রেসিডেন্ট আলবার্তো ফার্নান্দেজ এই করের মাধ্যমে তিনশ মিলিয়ন পেসোর তহবিল গঠন করতে চান।

এতে যে পরিমাণ অর্থ জমা পরবে তার ২০ শতাংশ করে ব্যাবহার করা হবে চিকিৎসা ও ত্রাণ সামগ্রী ক্রয়, ক্ষুদ্র ও মাঝারি উদ্যোক্তাদের সহায়তায় এবং শিক্ষার্থীদের বৃত্তি প্রদানে।

১৫ শতাংশ সামাজিক উন্নয়নে এবং বাকি ২৫ শতাংশ প্রাকৃতিক গ্যাস বিষয়ক কর্মকাণ্ডে ব্যবহৃত হবে। আর্জেন্টিনায় ১৫ লাখের মতো সংক্রমণ শনাক্ত হয়েছে। দেশটিতে করোনায় আক্রান্ত হয়ে মৃত্যুর সংখ্যা ৪০ হাজারের মতো।

দেশটিতে এমনিতেই বেকারত্ব, দারিদ্র এবং সরকারের ঋণের হার অনেক বেশি। ২০১৮ সাল থেকে আর্জেন্টিনায় অর্থনৈতিক মন্দা চলছে।তার উপর মহামারি মোকাবিলায় লকডাউন আরোপ করার পর দেশটিতে চলমান অর্থনৈতিক মন্দার আরও অবনতি হয়েছে।

নতুন এই করের ব্যাপারে যারা বিরোধিতা করছেন তারা বলছেন, এতে বৈদেশিক বিনিয়োগকারীরা নিরুৎসাহিত হবেন। গত নভেম্বরে যখন
বাড়তি কর আরোপের প্রস্তাব তোলা হয় তখন এই উদ্যোগের বিপক্ষে দেশটিতে বিক্ষোভও হয়েছে।

COMMENTS

[gs-fb-comments]