কাশ্মীরের জনগণের পক্ষে চীন

কাশ্মীরের জনগণের পক্ষে চীন

এখন মোদি-শাহকে দুষছেন বিজেপি নেতারা
এখন পেঁয়াজ রপ্তানি করতে চায় ভারত
জাতিসংঘে প্রথমবারের মতো ইসরাইলি বর্ব’রতার বি’রু’দ্ধে দাঁড়াল কানাডা

ভারতের কাশ্মীর সংক্রান্ত সিদ্ধান্তের বিরোধিতা করে কাশ্মীরের জনগণের পক্ষে মত দিয়েছে চীন। কাশ্মীরের বিশেষ মর্যাদা বাতিলের মাধ্যমে ভারত চীনের আঞ্চলিক সার্বভৌমত্ব ক্ষুণ্ণ করেছে বলে অভিযোগ করেছেন দেশটির পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের নারী মুখপাত্র হুয়া চুনিং। লাদাখকে ভারতের কেন্দ্রশাসিত অঞ্চল হিসেবে ঘোষণা করা সংক্রান্ত এক প্রশ্নের জবাবে তিনি মঙ্গলবার এই অভিযোগ করেন। লাদাখের বেশকিছু অংশ চীনের অন্তর্ভুক্ত।

চীনের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের ওয়েবসাইটে প্রকাশিত এক বিবৃতির বরাত দিয়ে এসব কথা জানিয়েছে পাকিস্তানের শীর্ষস্থানীয় গণমাধ্যম ডন। হুয়া চুনিং বলেন, সবসময় চীনা ভূখণ্ড ভারতীয় ভূখণ্ডের অন্তর্ভুক্ত করার বিরোধিতা করেছে চীন। সম্প্রতি ভারত এককভাবে দেশটির আইন পরিবর্তন করে চীনের আঞ্চলিক সার্বভৌমত্ব ক্ষুণ্ণ করেছে। তিনি বলেন, ভারতের এই পদক্ষেপ অগ্রহণযোগ্য এবং এর কোনও আইনি প্রভাব নেই। ভারতকে সীমান্ত সংক্রান্ত বিষয়গুলোতে সতর্ক হওয়ার আহ্বান জানাচ্ছে চীন।

চীন ভারতকে সীমান্ত সংক্রান্ত বিষয়গুলোকে আরও জটিল করে এমন পদক্ষেপ এড়িয়ে উভয় দেশের মধ্যে হওয়া চুক্তিগুলোকে কঠোরভাবে মেনে চলার আহ্বান জানাচ্ছে বলেও উল্লেখ করেন তিনি। রাষ্ট্রপতির নির্দেশ জারির মাধ্যমে সোমবার নরেন্দ্র মোদির সরকার বাতিল করে দেয় ভারতীয় সংবিধানের ৩৭০ ধারা। এছাড়া জম্মু ও কাশ্মীর রাজ্যকে দুই ভাগ করা করা হয়।

রাজ্যটিকে ভেঙে জম্মু ও কাশ্মীর এবং লাদাখ নামের দুটি কেন্দ্রশাসিত অঞ্চল করা হয়। এই দুই অঞ্চল পরিচালনা করবেন দুজন লেফটেন্যান্ট গভর্নর। জম্মু ও কাশ্মীরের বিধানসভা থাকলেও লাদাখের বিধানসভা থাকবে না। মঙ্গলবার দেশটির লোকসভায় জম্মু ও কাশ্মীরকে ভেঙে জম্মু ও কাশ্মীর এবং লাদাখ নামের দুটি কেন্দ্রশাসিত অঞ্চলে ভাগ করা সংক্রান্ত বিল পাস হয়।

COMMENTS

[gs-fb-comments]