যুক্তরাষ্ট্রের শহরে রাতভর গুলি: নিহত ৪, আহত ১৮

যুক্তরাষ্ট্রের শহরে রাতভর গুলি: নিহত ৪, আহত ১৮

মুসলমানদের পক্ষে আওয়াজ তোলায় এরদোগানকে ধন্যবাদ জানালেন ইমরান খান
ভারতকে ২২ টুকরো করার হুমকি দিলেন পাক মন্ত্রী
করোনায় একদিনে সাড়ে ৫ হাজার প্রাণহানি, আক্রান্ত পৌনে তিন লাখ

মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের সিনসিনাটি শহরে এক রাতেই বিভিন্ন জায়গায় গুলিবর্ষণে অন্তত ৪ জন নিহত এবং ১৮ জন আহত হয়েছেন। স্থানীয় প্রশাসন এই রাতকে ‘হিংস্র রাত’ বলে উল্লেখ করেছেন। স্থানীয় সংবাদমাধ্যম ও পুলিশের বরাত দিয়ে এ খবর দিয়েছে আল জাজিরা।

খবরে বলা হয়েছে, সিনসিনাটি শহরে শনিবার গভীর রাত থেকে রবিবার ভোর পর্যন্ত বিভিন্ন স্থানে গুলি চালানোর ঘটনা ঘটেছে। পুলিশের প্রাথমিক দাবি, প্রতিটি ঘটনাই বিচ্ছিন্ন৷ তবে কোনো বন্দুকবাজ এই হামলা চালিয়েছে, নাকি অন্য কোনো কারণে এতজন গুলিবিদ্ধ হলেন, তা এখনও স্পষ্ট নয়৷

প্রাথমিকভাবে জানা গেছে, শনিবার রাত সাড়ে ১২টা নাগাদ প্রথম গুলি চালানোর খবর আসে অ্যাভোনডেল এলাকা থেকে৷ সেখানে ২১ বছর বয়সি অ্যান্টোনিও ব্লেয়ার নামে এক যুবককে গুলিবিদ্ধ অবস্থায় হাসপাতালে নিয়ে যায় পুলিশ৷ কিন্তু তাকে বাঁচানো সম্ভব হয়নি৷ একই জায়গা থেকে গুলির আঘাত নিয়ে আহত অবস্থায় আরও তিনজনকে উদ্ধার করে পুলিশ৷

রাত ২টা ৩০ মিনিটে ফের একবার ওভার দ্য রাইন এলাকা থেকে গুলি চালানোর খবর আসে৷ সেখানে আহত হন ১০ জন৷ তাদের মধ্যে একজনের ঘটনাস্থলেই মৃত্যু হয়, আর একজন মারা যান হাসপাতালে৷ মৃত দুই যুবকের বয়স ৩৪ এবং ৩০ বছর৷

এর পাশাপাশি শহরের ওয়ালনাট হিলস এলাকাতেও গুলি চালানোর ঘটনা ঘটে৷ এর পাশাপাশি পশ্চিম প্রান্ত থেকেও রবিবার ভোরে গুলি চালানোর ঘটনা ঘটেছে৷ সেখানেও একজনের মৃত্যুর খবর পাওয়া গেছে বলে স্থানীয় সংবাদমাধ্যমগুলোতে দাবি করা হচ্ছে৷

পুলিশ জানিয়েছে, প্রতিটি ঘটনাই এক থেকে দেড় ঘণ্টা অন্তর ঘটেছে৷ যদিও শহরের অ্যাসিস্ট্যান্ট পুলিশ কমিশনার পল নিউজিগেট দাবি করেছেন, প্রতিটি ঘটনাই বিচ্ছিন্ন এবং পরস্পরের সঙ্গে সম্পর্ক নেই বলেই তারা মনে করছেন৷ তবে কারা এই ঘটনার জন্য দায়ী সে বিষয়ে প্রাথমিকভাবে অন্ধকারে পুলিশ৷

শহরের মেয়র জন ক্র্যানলি স্বীকার করে নিয়েছেন, শহরের বাসিন্দাদের কাছে বন্দুক বা আগ্নেয়াস্ত্র রাখাটা অত্যন্ত সহজলভ্য হয়ে দাঁড়িয়েছে৷ করোনা মহামারির জন্য এখন বার বন্ধ৷ ফলে নিজেদের বাড়িতে বা ব্যক্তিগত জায়গাতেই পার্টি করার জন্য নিয়মিত জড়ো হচ্ছেন অনেকে৷ সেখানেই এই ধরনের হিংসাত্মক ঘটনা ঘটছে বলে অনুমান তার৷ ফলে আপাতত এই ধরনের পার্টিতে গিয়ে নিজেদের প্রাণ সংশয় না করার জন্য শহরবাসীর কাছে অনুরোধ জানিয়েছেন তিনি।

COMMENTS

[gs-fb-comments]