যুক্তরাষ্ট্রে দাবানলে মৃতের সংখ্যা বেড়ে ৩৩

যুক্তরাষ্ট্রে দাবানলে মৃতের সংখ্যা বেড়ে ৩৩

মানুষকে সাহায্যের হাত বাড়াল বুনো ওরাংওটাং
এবার করোনা ভ্যাকসিনের অনুমোদন দিলো চীন
৭ সেপ্টেম্বর থেকে কাতারে বিশেষ ফ্লাইট পরিচালনা করবে বিমান

দাবানলে পুড়ছে যুক্তরাষ্ট্র। গেল তিন সপ্তাহের আগুনে পুড়ে ছাই হচ্ছে ক্যালিফোর্নিয়া, ওরিগন ও ওয়াশিংটনের বিস্তৃত এলাকা। এখন পর্যন্ত মারা গেছেন ৩৩ জন। নিখোঁজ রয়েছে আরও অনেকে। খবর আল জাজিরার।

সংবাদমাধ্যমটির বরাত দিয়ে জানা গেছে, শুধু ওরিগনেই কয়েক ডজন মানুষ নিখোঁজ রয়েছে। তাদের খুঁজে বের করতে ইতোমধ্যে প্রশিক্ষিত কুকুরসহ উদ্ধারকর্মীদের নামানো হয়েছে।

ওরিগনের জরুরি ব্যবস্থাপনা দপ্তর (ওইএম) জানিয়েছে, স্থানীয় সময় রবিবার সকাল পর্যন্ত রাজ্যে ৩৪টি বড় আকারের দাবানল সক্রিয় ছিল। এখন পর্যন্ত মৃতদের সিংহভাগই ওরিগনের বাসিন্দা। রাজ্যের একজন কর্মকর্তা জানিয়েছেন, সেখানে আরও প্রাণহানির আশঙ্কা করা হচ্ছে।

তিন সপ্তাহ ধরে ভয়াবহ দাবানলে পুড়ছে ক্যালিফোর্নিয়া, ওরিগন ও ওয়াশিংটন রাজ্যের বিস্তৃত এলাকা। প্রবল বাতাসের কারণে দাবানল আরও তীব্রতর হয়ে ছড়িয়ে পড়ছে। হাজার হাজার ঘরবাড়ি পুড়ে ছাই হয়ে গেছে, পুড়েছে মিলিয়ন একর এলাকা। আগুনের তীব্রতায় লাখ লাখ মানুষ তাদের বাড়িঘর ছাড়তে বাধ্য হয়েছে।

ডেমোক্র্যাট প্রার্থী জো বাইডেন সতর্ক করে বলেছেন, জলবায়ু পরিবর্তন আমাদের অস্তিত্বের জন্য হুমকি হয়ে দাঁড়িয়েছে। এই বাস্তবতা অস্বীকার করার জন্য তিনি ডোনাল্ড ট্রাম্পকে অভিযুক্ত করেন। অন্যদিকে দাবানলের কারণ হিসেবে দুর্বল বন ব্যবস্থাপনাকে দায়ী করেছেন ট্রাম্প।

ক্যালিফোর্নিয়ায় গত মাসে শুরু হওয়া দাবানল এরইমধ্যে ৩২ লাখ একর অঞ্চলে ছড়িয়ে পড়েছে। ধ্বংস হয়ে গেছে প্রায় ৪ হাজার অবকাঠামো।

এদিকে ওরিগন ফায়ার সার্ভিস কর্মীরা ১৬টি বড় দাবানলের সঙ্গে লড়াই করছে। সেখানকার ৪০ হাজার মানুষকে বাধ্যতামূলকভাবে এলাকা ছেড়ে চলে যাওয়ার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।

অন্যদিকে, ওয়াশিংটন রাজ্যে দমকলকর্মীরা ১৫টি বড় দাবানলের সঙ্গে লড়াই করছেন। এই সপ্তাহের শুরুতে আগুনে সেখানে এক বছর বয়সী একটি শিশু মারা গেছে।

COMMENTS

[gs-fb-comments]