খালেদা জিয়াকে নিয়ে সরকারের এমন চালাকি করা মোটেও উচিত না – ডা. জাফরুল্লাহ চৌধুরী

খালেদা জিয়াকে নিয়ে সরকারের এমন চালাকি করা মোটেও উচিত না – ডা. জাফরুল্লাহ চৌধুরী

পাখির ঝাঁকের সঙ্গে ধাক্কা, তুর্কি বিমানের জরুরি অবতরণ
ফেলে দেওয়া প্লাষ্টিকের বোতল থেকে বছরে আয় ৪০ কোটি টাকা!
চলতি মাসেই ফের শৈত্যপ্রবাহসহ শিলাবৃষ্টি ও বজ্রঝড়ের আভাস

গণস্বাস্থ্য কেন্দ্রের প্রতিষ্ঠাতা ডা. জাফরুল্লাহ চৌধুরী বলেছেন, তর্ক-বিতর্ক না করে মানবিকতার কারণে দেশের মঙ্গলের জন্য খালেদা জিয়াকে বিদেশে চিকিৎসার অনুমতি দেওয়া উচিৎ। তাকে নিয়ে সরকারের এমন চালাকি করা মোটেও উচিত হচ্ছে না। উনার যে অবস্থা এদেশে চিকিৎসা হচ্ছে না। লাঞ্চে পানি আশাটা খুবই খারাপ লক্ষণ।

যে কোন সময় কোনও কিছু হতে পারে। এটা দেশের জন্য খুবই বিপদজনক। রবিবার দুপুরে টাঙ্গাইলের সন্তোষে পবিত্র ঈদ উপলক্ষে অসহায়দের মাঝে খাদ্যসামগ্রী বিতরণ ও মজলুম জননেতা মওলানা আবদুল হামিদ খান ভাসানীর মাজার জিয়ারত শেষে তিনি সাংবাদিকদের এসব কথা বলেন তিনি।

তিনি আরও বলেন, চিকিৎসার জন্য আমাদের প্রধানমন্ত্রীও দেশ বাইরে গিয়েছেলেন। যখন আইন মন্ত্রণালয়ে চিঠি পাঠিয়েছে তখনইতো অনুমতি দিতে পারতো সরকার। এটাতো আধাঘণ্টার কাজ। মানবিকতার কারণে হলেও বেগম খালেদা জিয়াকে বিদেশে যাওয়ার অনুমতি দেওয়া উচিৎ।

তিনি বলেন,মানুষ যেভাবে বাড়ি ফিরছে তাতে করোনায় রোগ আরও ভাড়বে। বড় লোকেরা প্লেনে যাবে, নিজের গাড়িতে যেতে পারবে। আর সাধারণ মানুষ বছরে একটা ঈদ করতে পারবে না, এটা হয়? করোনায় রোগ বাড়তে পারে এজন্য অনেক সহজ পথ ছিল। পরিস্কার করে বলা যেতো যারা বাড়ি যাবে তারা একদিন আগে রোগটা পরিক্ষা করে নেন। সরকার করোনার মৃত্যু কম দেখানোর জন্য পরিক্ষা কম করছেন।

তিনি আরও বলেন, আজকে এই সময়ে যারা দেশ চালাচ্ছেন, তাদেরকে ধমক দিয়ে কথা বলার একমাত্র মানুষ ছিলেন মওলানা আবদুল হামিদ খান ভাসানী। উনাকে অনুস্মরণ করলেই জাতি জীবিত থাকবে, ভালোভাবে বেঁচে থাকবে।

এসময় তার সাথে উপস্থিত ছিলেন, ভাসানী অনুসারী পরিষদের মহাসচিব শেখ রফিকুল ইসলাম বাবলু, প্রেসিডিয়াম সদস্য নঈম জাহাঙ্গীর, গণস্বাস্থ্যের প্রেস উপদেষ্টা জাহাঙ্গীর আলম মিন্টু প্রমুখ।

COMMENTS

[gs-fb-comments]