শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খুলে দেয়ার দাবি রাবি শিক্ষক-শিক্ষার্থীদের

শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খুলে দেয়ার দাবি রাবি শিক্ষক-শিক্ষার্থীদের

আসলেই, এমানুয়েল ম্যাক্রন এর মা’নসিক চিকিৎসা প্রয়োজন: আজহারী
লকডাউন বাড়ানোর বিষয়ে যা বললেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী
চলতি মাসেই ফ্লাইট চালু করতে চায় রিজেন্ট এয়ারওয়েজ

স্বাস্থবিধি মেনে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খোলার দাবি জানিয়েছেন রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক ও শিক্ষার্থীরা। মঙ্গলবার (২৫ মে) বেলা ১১টায় বিশ্ববিদ্যালয়ের প্যারিস রোডে স্টুডেন্ট রাইটস অ্যাসোসিয়েশনের ব্যানারে এ দাবি জানানো হয়।

বিশ্ববিদ্যালয়ের অর্থনীতি বিভাগের শিক্ষার্থী জাবেদুল ইসলাম মনির সঞ্চালনায় অ্যাসোসিয়েশনের সভাপতি কে এ এম সাকিবের সভাপতিত্বে বক্তব্য দেন-সমাজবিজ্ঞান বিভাগের শিক্ষার্থী জেবা মাকসুরা, মতিউর পাটোয়ারী, রাবি ছাত্র ইউনিয়নের সাবেক সাধারণ সম্পাদক মাহমুদুল হাসান আসিফ প্রমুখ।

স্বাস্থ্যবিধি মেনে অবিলম্বে শিক্ষা প্রতিষ্ঠান খুলে দেয়ার দাবি জানিয়ে তারা বলেন, শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বন্ধ হওয়ার কারণে শিক্ষার্থীরা অনালইনে আসক্ত হয়ে পড়ছে। হতাশা কাজ করছে। এর জন্য শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বন্ধ থাকাকে দায়ী করেন তারা।

শিক্ষার্থীদের সঙ্গে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খুলে দেয়ার দাবি শিক্ষকদেরও। মানববন্ধনে উপস্থিত আরবি বিভাগের অধ্যাপক ড. ইফতিখারুল আলম মাসউদ বলেন, সভ্য দেশগুলোর মধ্যে একমাত্র বাংলাদেশে দীর্ঘ সময় ধরে শিক্ষা-কার্যক্রম বন্ধ আছে। সরকার চাইলে বিকল্প ব্যবস্থার মাধ্যমে শিক্ষা-কার্যক্রম চালু রাখতে পারতেন। সরকার সেটি করেননি। এখন শিক্ষার্থীদের মানসিক স্বাস্থ্য অবনতির দিকে যাচ্ছে।

এছাড়া বক্তব্য দেন আইন বিভাগের সহযোগী অধ্যাপক আব্দুল আলীম, অর্থনীতি বিভাগের অধ্যাপক ড. ফরিদ খান।

শিক্ষকরা বলেন, শুধু শিক্ষার্থীরা নয় শিক্ষরাও মানসিক ভারসাম্য হারিয়ে ফেলছেন। অনেক সময় পারিবারিক পরিমণ্ডলে এর প্রভাব পড়ছে। কখনো কখনো পরিবারের সদস্যদের ওপর আচরণ কঠোর হয়ে যাচ্ছে। অন্যদিকে অনলাইনে শিক্ষা কার্যক্রম চালিয়ে নেয়াও সম্ভব হচ্ছে না।

শিক্ষকরা আরও বলেন, করোনা প্রতিরোধে কী ভূমিকা রাখা দরকার সেটি বিশ্ববিদ্যালয়েই গবেষণা হওয়ার কথা। কিন্তু শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বন্ধ রাখার কারণে অনেক গবেষণা কার্যক্রম স্থবির। তাই দ্রুত শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খুলে দেয়ার মাধ্যমে সেই পথ সুগম করার আহ্বান জানান তারা।

COMMENTS

[gs-fb-comments]