আম’রণ অ’নশনে ধ”র্ষ’ণের শি’কার ঢাবির সেই ছা’ত্রী

আম’রণ অ’নশনে ধ”র্ষ’ণের শি’কার ঢাবির সেই ছা’ত্রী

করো;নাকালীন সাংবাদিকতা ও পেশার ভবিষ্যৎ
পরীক্ষা বাতিল হলেও নির্ধারিত সময়ে বিশ্ববিদ্যালয় ভর্তি
ইতালিতে এক সপ্তাহে বাংলাদেশিসহ আক্রান্ত লাখের বেশি

ডাকসুর সাবেক ভিপি নুরুল হক নুর, বাংলাদেশ ছাত্র অধি.কার পরিষ’দের অব্যা’হতি’প্রাপ্ত আহ’বায়ক হাসান আল মামু’নসহ ধ’র্ষ’ণে অ’ভিযুক্ত সংগঠনটির ছয় নেতা’ক’র্মীকে গ্রে’প্তা’রের দাবিতে আম’রণ অ’নশন শুরু করেছেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ইসলামিক স্টাডিজ বিভাগের সেই ছাত্রী।

বৃহস্পতিবার (৮ অক্টোবর) রাত সাড়ে আটটায় বিশ্ববিদ্যালয়ের স’ন্ত্রাস বি’রোধী রাজু ভা’স্কর্যে অ’নশন শুরু করেন তিনি। এ সময় তার সাথে বিশ্ববিদ্যালয়ের অনেক শিক্ষার্থী অংশ’গ্রহণ করেন।

এ বি’ষয়ে ওই শিক্ষার্থী দ্যা ডেইলি ক্যা’ম্পাসকে বলেন, ধ’র্ষকরা প্রকা’শ্যে ঘু’রে বেড়া’লেও তাদের গ্রে’প্তার করা হচ্ছে না। সেজন্য আজ বা’ধ্য হয়ে অ’নশনে বসেছি।

ধ’র্ষ’করা জাতির শ’ত্রু। তাদের কোন ক্ষমা নেই। হাসান আল মামনু ও নুরুল হক নুর’সহ অ’ভিযুক্তদের গ্রে’প্তার না করা পর্যন্ত আমার অ’নশন অব্যাহত থাকবে।

এর আগে গত ২০ সেপ্টেম্বর লালবাগ থা’নায় মামু’নকে প্র’ধান আ’সামী করে ছাত্র অধি’কার পরিষদের ছয় নেতা’কর্মীর বি’রুদ্ধে রাজ’ধানীর লাল’বাগ থা’নায় ধ’র্ষ’ণের মা’মলা করেন ওই ছাত্রী।

এই মা’ম’লায় ডাকসুর সাবেক ভি’পি নুরকে ধ’র্ষ’ণে সহা’য়তা’রী হিসেবে উল্লেখ করা হয়। এর পর গত ২১ সেপ্টেম্বর একই আ’সা’মিদের বি’রু’দ্ধে পরস্পর যোগসাজশে

অ’পহ’রণ, ধ’র্ষ’ণ, ধ’র্ষ’ণে সহযো’গিতা এবং হেয় প্রতিপন্ন করতে ডি’জিটাল মাধ্যমে অ’পপ্র’চারের অ’ভিযোগ কোতো’য়ালি থা’নায় অরে’কটি মা’মলা করেন ওই ছাত্রী।

উভ’য় মা’মলার আ’সামিরা হলেন, বাংলাদেশ সাধারণ ছাত্র অধিকার সংর’ক্ষণ পরিষদের যু’গ্ম আহ্বায়ক নাজমুল হাসান সোহাগ (২৮), একই সংগঠনের অব্যাহতিপ্রাপ্ত আহ্বায়ক হাসান আল মামুন (২৮), ঢাকা বিশ্ব’বিদ্যাল’য়ের কে’ন্দ্রীয় ছাত্র সং’সদের (ডাকসু) সাবেক ভিপি নুরুল হক নুর (২৫), বাংলাদেশ ছাত্র অধিকার পরিষদের যু’গ্ম আহ্বায়ক মো. সাইফুল ইসলাম (২৮), বাংলাদেশ সাধারণ ছাত্র অধিকার সংরক্ষণ পরিষদের সভাপতি নাজমুল হুদা (২৫) এবং ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী আব্দুল্লাহিল কাফি (২৩)। সূএঃস্বাধীন নিউজ২৪

COMMENTS

[gs-fb-comments]