ডায়াবেটিসে ভুগছেন, খেয়ে দেখুন তালের শাঁস-ওলকচু

ডায়াবেটিসে ভুগছেন, খেয়ে দেখুন তালের শাঁস-ওলকচু

পুরভরা ক্রিস্পি কাকরোল
খাবার তালিকায় রাখুন রসুন-দুধ
দেশি-বিদেশি মজার রান্না

মানসিক অবসাদ, অনিয়ন্ত্রিত খাদ্যাভ্যাস ও অনিয়মিত জীবনযাপনসহ নানা কারণে ডায়াবেটিস হতে পারে।

ডায়াবেটিস আক্রান্তদের হৃদরোগ, স্ট্রোক হওয়ার ঝুঁকি বেশি থাকে। এছাড়া কিডনি ক্ষতিগ্রস্ত হওয়া, চোখের রেটিনা ক্ষতিগ্রস্ত হওয়া এবং প্রজনন ক্ষমতা হ্রাস পাওয়া– সর্বোপরি মৃত্যুর ঝুঁকি বেড়ে যাওয়ার আশঙ্কা থাকে এই রোগীর।

ডায়াবেটিস কখনও ভালো হয় না। তবে এই রোগ নিয়ন্ত্রণে রাখলে ভালো থাকা যায়।

ডায়াবেটিস নিয়ন্ত্রণে কিছু দেশীয় খাবারে আস্থা রাখতে পারেন। খাবার তালিকায় রাখতে পারেন তালের শাঁস-ওলকচু। তাই ডায়াবেটিস নিয়ন্ত্রণে রোগীরা শাঁস- ওলকচু খেতে পারেন।

তালের রস, কচি তালের শাঁস ও তালের আঁটির ভেতরের সাদা অংশ এবং ওলকচুতে প্রচুর পরিমাণে পুষ্টিগুণ ফাইটোকেমিক্যাল থাকায় উপাদান দু’টি ডায়াবেটিস নিয়ন্ত্রণে কাজ করে।

ভারতের ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়ের একটি গবেষণায় এসব খাবারে ডায়াবেটিস নিয়ন্ত্রণের উপাদান পাওয়া গেছে। গবেষণায় দেখা গেছে, কচি তালের শাঁস, পাকা তালের রস এবং তালের আঁটির ভেতরের সাদা শাঁস এশিয়ার অনেক দেশে জনপ্রিয় খাবার।

ফলটি সুস্বাদু ও পুষ্টিসমৃদ্ধ হলেও অনেক ডায়াবেটিস রোগী পাকা তালের রস অথবা এর শাঁস খাওয়া থেকে বিরত থাকেন। তবে কচি তালের শাঁস ও ওলকচুর মধ্যে রয়েছে অনেক পুষ্টিগুণ সমৃদ্ধ ফাইটোকেমিক্যাল। ডায়াবেটিস নিয়ন্ত্রণে সাহায্য করে।

স্বাভাবিক খাবারের পাশাপাশি এ দু’টিকে পরিমিত মাত্রায় প্রয়োগ করলে নিয়ন্ত্রণে চলে আসবে ডায়াবেটিস। তাই খাবার তালিকায় রাখুন ওলকচু ও তাল শাঁস।

COMMENTS

[gs-fb-comments]