ত্বক-চুলের সমস্যায় এক চিমটে মধু

ত্বক-চুলের সমস্যায় এক চিমটে মধু

‘কোভিড কারি’ ও ‘মাস্ক নান’
যেভাবে যত্ন নিলে হাত কোমল ও সুন্দর থাকবে
ছয়টি নিয়ম মানলেই সিজার এড়ানো সম্ভব!

রুপচর্চায় মধু অনেক আগে থেকেই ব্যবহার হয়ে আসছে। ত্বক ও চুল সুস্থ রাখতে ব্যবহার করতে পারেন মধু। ত্বক ও চুলের যত্নে রাসায়নিক উপাদান ব্যবহার না করাই ভালো।

ত্বক ও চুলের যত্নে বেছে নিতে পারেন প্রাকৃতিক মধুসহ অন্যান্য আরও অনেক উপাদান। দৈনন্দিন জীবনে ত্বকের জেল্লা আনতে তাই মধুই হতে পারে সমাধান।

১. দু’চামচ মধু ও দু’চামচ আমন্ড গুঁড়ো একসঙ্গে মিশিয়ে নিয়ে মুখে লাগিয়ে নিন। এই মিশ্রণ আপনার ত্বককে রাখবে সুস্থ ও উজ্জ্বল।

২. হাতের তালুতে কয়েক ফোঁটা মধু নিয়ে মুখে সরাসরি মালিশ করুন। মধুর প্রলেপ লাগানো পাঁচ থেকে দশ মিনিট অপেক্ষা করুন। শুকানোর পর মুখ ধুয়ে ফেলুন।

৩. ত্বকে আর্দ্রতা ফেরাতে মধুর সঙ্গে অলিভ অয়েল একসঙ্গে মিশিয়ে একটি মিশ্রণ তৈরি করুন। তার পর শুষ্ক অংশে ওই মিশ্রণ লাগিয়ে অপেক্ষা করুন ২০ মিনিট। এর পর ভেজা সুতি কাপড় দিয়ে ত্বক মুছে নিন। আর ঠাণ্ডা পানি দিয়ে ধুয়েও নিতে পারেন।

৪. মেকআপ তোলার জন্যও মধু খুব ভালো কাজ করে। নারিকেল তেলের সঙ্গে সামান্য মধু মিশিয়ে নিন। চোখের চার পাশ ছাড়া মুখের সর্বত্র এই মিশ্রণ লাগাতে পারেন। তার পর উষ্ণ পানি দিয়ে মুখ ধুয়ে ফেলুন।

৫. ব্ল্যাক হেডসের সমস্যা থাকলেও এক চামচ বেকিং সোডার সঙ্গে দু’চামচ মধু মিশিয়ে স্ক্রাব তৈরি করে ব্যবহার করুন।

৬. গোসলের সময় এক মগ পানিতে মিশিয়ে নিন আধকাপের চেয়ে একটু বেশি পরিমাণ মধু। শ্যাম্পুর পর কন্ডিশনার ব্যবহারের পরিবর্তে এই মিশ্রণ ঢেলে দিন চুলে।

৭. দু’চামচ টক দই ও তিন চামচ মধু মিশিয়ে একটা হেয়ার প্যাক বানিয়ে নিন। গোসলের আগে এই মিশ্রণ মেখে নিন চুলে। তার পর শ্যাম্পু করে ধুয়ে ফেলুন চুল

COMMENTS

[gs-fb-comments]