ভিক্ষা করে জমানো টাকার পুরোটাই মসজিদে দান করলেন ‘শেফা পাগলি’

ভিক্ষা করে জমানো টাকার পুরোটাই মসজিদে দান করলেন ‘শেফা পাগলি’

জাতীয় সংগীত বি’কৃত করা সেই মাদ্রাসার কার্যক্রম বন্ধ
মৃ’ত্যু’র আগে একবার বাবা বলে ডাকতে চাই!
২৩০ কিলোমিটার মানববন্ধন করলেন তিস্তা পাড়ের মানুষ

নাম শেফালি খাতুন হলেও লোকজন ডাকেন শেফা পাগলি বলে। শারীরিক প্রতিব;ন্ধকতার কারণে লা;ঠিতে ভর করেই করতে হয় চলাচল। মা-বাবা হারা শেফালিকে বিয়ের এক বছর না যেতেই তাড়িয়ে দেন স্বামী।

দুঃখ-কষ্টে বড় হওয়া সেই শেফালি ভিক্ষা করে জমানো ৪০ হাজার টাকা দান করেছেন মসজিদে। ভবিষ্যতে টাকা জমিয়ে মাদরাসা ও এতিমখানায় দান করারও ইচ্ছা রয়েছে উদার মনের এ মানুষটির।

শেফালি খাতুনের বাড়ি রাজশাহীর বাঘা উপজেলার গড়গড়ি ইউনিয়নের ব্রাহ্মণডাঙ্গা গ্রামে। বাঘা বাজারে বুলবুলের চায়ের দোকানের সামনে ভিক্ষা করেন তিনি। ভিক্ষার টাকা জমিয়ে গ্রামে কবরস্থান সংস্কার, মসজিদে মাইক ও ফ্যান কেনার জন্যও টাকা দিয়েছেন তিনি।

পৈত্রিক সূত্রে পাওয়া এক কাঠা জমিতে কোনোরকম ঘর তুলে দিন কাটাচ্ছেন শেফালি। সরকারিভাবে শুধু প্রতিবন্ধী ভাতা পান।

শেফালি বলেন, এত টাকা কী হবে, আল্লাহর ঘরে দান করলে মানুষের উপকার হবে। পরকালে শান্তি পাওয়া যাবে।

বাঘা পৌরসভার দক্ষিণ গাঁওপাড়া কবরস্থান জামে মসজিদ কমিটির সভাপতি শামসুজ্জোহা বলেন, দফায় দফায় ৪০ হাজার টাকা দিয়েছেন শেফালি। সেই টাকা দিয়ে মসজিদের মাইক, ফ্যান ও টাইলস কেনা হয়েছে।

COMMENTS

[gs-fb-comments]